Breaking News

মানবিকতার নজির সৃষ্টি করে গয়না বন্ধক রেখে ঋণ নিয়ে রাস্তার কুকুরদের ভোজন করাচ্ছেন এই মহিলা!

নিজস্ব প্রতিবেদন: লকডাউন এরপর থেকেই মানুষ সহ সমস্ত পশুরা অসহায় অবস্থায় রয়েছে।কারণ এতদিন পর্যন্ত যেসব মানুষেরা পথে-ঘাটে চলতে চলতে এইসব কুকুরদের খাবার খেতে দিতেন আপাতত তারা অনেকটাই ঘর ব-ন্দি হয়ে পড়েছেন। স্বাভাবিকভাবেই সময়ের সাথে সাথে মানুষের স্বার্থ পা-ল্টে গিয়েছে। যদিও কিছু পশুপ্রেমীদের এই পর্যায়ে এগিয়ে আ-সতে দেখা গিয়েছে।

কিন্তু সেই সংখ্যা নিতান্তই কম।সম্প্রতি কিছুদিন আগেই সরস্বতী পুজোর দিন এক জায়গা থেকে খি-চুড়ি ভোগ এর মধ্যে বি-ষ মিশিয়ে কুকুরদের মে-রে ফেলার খবর সামনে এসেছিল। এই ঘটনায় সারা পড়ে গিয়েছিল নেট দুনিয়ায়।যদিও তার পরেও অভি-যুক্তের কোন রকম খোঁজ খবর পাওয়া সম্ভব হয়নি।এবং মানুষ না হওয়ার কারণে প্রশাসনের তরফে এইসব বিষয়ে কোনো জো-র দেওয়া হয়নি।

স্বার্থবাদী মানুষদের এই দুনিয়ায় সম্প্রতি এমন এক মহিলার খোঁজ পাওয়া গিয়েছে যিনি পথকুকুরদের সেবা করার জন্য রীতিমতো নিজের গয়না বন্ধক দিয়ে ফেলেছেন। নিশ্চয়ই ঘটনাটি জানার পর আপনিও অনেকটাই অবাক হয়েছেন। জানা গিয়েছে, নীলাঞ্জনা বিশ্বাস নামে এই মহিলা ছোট থেকেই কুকুরপ্রেমী ছিলেন।

বর্তমানে তার বাড়িতে তেরোটি কুকুর রয়েছে। কিন্তু বরাবর থেকেই রাস্তার কুকুর ছানা দের জন্য কিছু করতে চাইতেন তিনি। কিন্তু কখনো সেরকম সুযোগ আসেনি।এমতাবস্থায় হঠাৎ করেই মাথায় এক নতুন চিন্তা ঘোরাফেরা করায় নিজের গয়না বন্ধক রেখে ব্যাংক থেকে লোন নিয়ে কুকুরদের জন্য খাবারের ব্যবস্থা করেছেন নীলাঞ্জনা।

45 বছর বয়সী এই গৃহবধূ সেই ঋণের টাকায় খাবারের ব্যবস্থা করে সকাল থেকেই স্কুটারে করে কল্যাণীর রাস্তায় রাস্তায় ঘোরেন।নিজের প্রায় দু লক্ষ টাকার গয়না বন্ধক রেখে ব্যাংক থেকে তিন লক্ষ টাকা লোন নিয়েছেন তিনি। প্রতিদিন তিনি মুরগির মাংস এবং ভাত বানিয়ে রাস্তার সারমেয়দের ভোজন করান।

প্লাস্টিকের জিনিস এর মধ্যে তিনি এই খাবারগুলি কে পরিবেশন করে থাকেন।খাবার শেষ হলে সব জিনিস পরিষ্কার করার পাশাপাশি কুকুরদের জল খাওয়ানোর দায়িত্ব নিয়েছেন তিনি। এছাড়াও সারমেয়দের যত্ন করার জন্য ভ্যাকসিন,নানান ধরনের প্রচার অভিযানে অংশগ্রহণ করেন নীলাঞ্জনা।

কুকুরদের খাওয়ানোর জন্য বাড়িতে রীতিমতো আলাদা ফ্রিজ কিনে ফেলেছেন তিনি। শুধু তাই নয় তাদের সমস্ত চিকিৎসা থেকে শুরু করে সব দায়িত্ব এই মহিলার। পরিস্থিতি এবং সময় যাই হোক না কেন প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময়ে স্কুটারে করে 400 কুকুরের খাবার নিয়ে বেরিয়ে পড়েন কল্যাণীর রাস্তায়।

বিগত কয়েক বছর ধরে তার এই নিয়মে কোনরকম ব্যতিক্রম লক্ষ্য করা যায়নি। ঠিক একই রকমভাবে নিজের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন নীলাঞ্জনা। ভবিষ্যতে রাস্তার এই সারমেয়দের জন্য আরো কিছু সুব্যবস্থা করার ইচ্ছে রয়েছে তার।তবে যদি এই কাজে আরো কিছু মানুষের সহায়তা লাভ করেন তিনি তাহলে অনেকটাই সুসং-হত ভাবে তা এগিয়ে যাবে।

Check Also

হে’রে গেলেন তারকা প্রার্থী সায়ন্তিকা, হেরে গিয়ে কেঁ’দে চোখ ভা’সালেন অভিনেত্রী , তু’মু-ল ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- ২০২১ এর হা-ই-ভো-ল্টেজ বিধানসভা ভোটের ফলাফল ইতিমধ্যে প্রকাশিত হয়ে গেছে এবং ক্ষ-ম-তায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *