Breaking News

বহু ক-ষ্টে নিজের গো-প’ন দু’র্ব’ল-তার কথা প্রকাশ্যে ফাঁ-স করলেন অভিনেত্রী রচনা ব্যানার্জি, নেটদুনিয়ায় শোরগোল!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- বয়স যেন তার কাছে একটা সংখ্যা মাত্র । ফের ভাইরাল অভিনেত্রী । বয়স ৪০ এর উপরে হলেও এখনো পর্যন্ত তার ছা-প প-ড়েনি শরীরে .। যৌ-বন যেন ঠি-করে প-ড়ছে । এই মুহূর্তে দাঁড়িয়ে টে-ক্কা দি-তে পারে এই প্রজন্মের বহু সুন্দরী অভিনেত্রী দের । আমি কার কথা বলছি আপনারা হয়তো অনেকেই আন্দাজ করতে পেরেছেন এবং অনেকেই করতে পারেননি। তবে বেশি দেরি না করে বলেই ফেলি সেই নামটি। আমি এই মুহূর্তে গত ১০ বছর ধরে দিদি নাম্বার ওয়ান এর সাফল্যমণ্ডিত সঞ্চালিকার কথা বলছি যার নাম রচনা ব্যানার্জি ।

অবশ্য তিনি এই বাংলার জনপ্রিয় একজন অভিনেত্রী ও বটে। কিন্তু অভিনয় জগৎ থেকে বিরতি নিচ্ছেন বহু বছর হল।অভিনয় জগৎ থেকে বিরত নিলেও জনপ্রিয়তা কমে নি বিন্দুমাত্র। বরং বলা বাহুল্য দিদি নাম্বার ওয়ান এর মাধ্যমে তার জনপ্রিয়তা বেড়ে গেছে আরো দ্বিগুন পরিমানএ । এখন প্রতিটি দর্শকের মনে রচনা ব্যানার্জি রয়েছে। ১৯৭৪ সালের ২ অক্টোবর, কলকাতা, পশ্চিম বঙ্গ, ভারত এ জন্ম গ্রহণ করেন তিনি । রচনা ব্যানার্জি  প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের সাথে ৩৫টি সিনেমাতে অভিনয় করেন।

তিনি বেশকিছু ওড়িশ্যা ছবিতে অভিনয় করেন সিদ্ধার্থ মহাপত্র-এর সঙ্গে। এছাড়া তিনি অমিতাভ বচ্চনের সাথে হিন্দি ছবিতে অভিনয় করেন। এছাড়া, তিনি উপেন্দ্র ও চিরঞ্জিবের সাথে দক্ষিণ ভারতের ছবিতে অভিনয় করেন। ৯০এর দশকে ভারতীয় বাংলা চলচ্চিত্রে আসা নায়িকাদের মধ্য তিনি প্রথমসারির নায়িকা হিসাবে খ্যাতি পান। রচনা ব্যানার্জী ১৯৯০ সালে মিস ক্যালকাটা পুরস্কার জেতেন। তিনি অভিনয় শুরু করার আগে অনেক সুন্দরী প্রতিযোগিতা জেতেন। তিনি পিতা-মাতার একমাত্র সন্তান। তার আসল নাম ‘ঝুমঝুম ব্যানার্জী’।

পরিচালক সুখেন দাস তার প্রথম চলচ্চিত্র দান প্রতিদানে (১৯৯৩) তার নাম রাখেন রচনা। রচনা কটকে সিদ্ধার্থ মহাপত্র-কে বিয়ে করেন। পরে তাদের ছাড়াছাড়ি হয় এবং ওড়িশ্যা চলচ্চিত্র ছেড়ে দেন। পরে তিনি প্রবাল বসুকে বিয়ে করেন এবং তাদের একটি ছেলে প্রনিল বসু।তিনি পরে আর বিয়ে করেন না। তবে এসবের পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতে যথেষ্ট পরিমাণে সক্রিয় বাংলার এই অভিনেত্রী।

মাঝেমধ্যেই তার অনুগামীদের জন্য তুলে ধরেন বেশ কয়েকটি ভিডিও এবং ছবি। কাজের ফাঁকে যদি সময় পাই তাহলে পাড়ি দেয় অন্য কোন জায়গায় । এবং সেখান থেকে তিনি তুলে ধরেন প্রতিটি মুহূর্ত তার অনুগামীদের উদ্দেশ্যে । সম্প্রতি তিনি সোশ্যাল মিডিয়াতে জানিয়েছেন তার দু-র্ব-লতার কথা । তিনি জানিয়েছেন নিজেকে ঠিক রাখতে তিনি প্রতিদিন লাউয়ের জুস খান । কিন্তু তার দু-র্ব-লতা হলো মিষ্টি । ব্যা-পক পরিমাণে তিনি মিষ্টি খেতে ভালোবাসেন । কিন্তু শরীরের প্রতি খেয়াল রেখে পর্যাপ্ত পরিমাণে বা মনের ইচ্ছে মত মিষ্টি খেতে পারেন না । এবং মিষ্টি তার একমাত্র দু-র্বলতা ।

Check Also

হে’রে গেলেন তারকা প্রার্থী সায়ন্তিকা, হেরে গিয়ে কেঁ’দে চোখ ভা’সালেন অভিনেত্রী , তু’মু-ল ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- ২০২১ এর হা-ই-ভো-ল্টেজ বিধানসভা ভোটের ফলাফল ইতিমধ্যে প্রকাশিত হয়ে গেছে এবং ক্ষ-ম-তায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *