Breaking News

জলে নিচে চার বাঘ, গাছের ডাল ধরে নিচে একটু নামতেই ঘটলো বি-প’ত্তি, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আমরা প্রতিনিয়ত এমন বেশ কিছু ধরনের ঘটনার সাক্ষী থেকে থাকি । যা হয়তো আমরা এর আগে কখনো দেখিনি। বিভিন্ন ধরনের কৌ-তুহলী মজার এবং শিক্ষামূলক ভিডিও আমাদের সামনে আসে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে। তার পাশাপাশি আমরা প্রতিনিয়ত সোশ্যাল মিডিয়ার উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়ছে কারন বর্তমান যুগে অধিকাংশ মানুষই নির্ভর করে থাকে সোশ্যাল মিডিয়ার ওপর ।

জীবনযাত্রা বিভিন্ন ছোটখাটো বিষয় এর জন্য সাহায্য নিয়ে থাকে সোশ্যাল মিডিয়াতে। আর ঠিক সেরকমই একটি ঘটনা দেখা গেল এর আগে কখনো দেখা যায়নি। তাই রীতিমত অবাক করে তুলেছে সাধারণ মানুষদেরকে । যারা বনে জঙ্গলে বসবাস করে তাদেরকে প্রতিনিয়ত সং-গ্রাম করে জীবন যাপন করতে হয় এই সং-গ্রাম অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার সং-গ্রাম কাজেই কেউ যদি নিজের অস্তিত্ব বাঁচিয়ে রাখতে চায় তাহলে তাকে প্রতিদিনই ল-ড়াইয়ের স-ম্মুখীন হতে হবে

এই ঘটনা প্রমাণ আমরা বিভিন্ন মাধ্যমে পেয়েছি এর আগে সম্প্রতি পেলাম আরো একবার । সম্প্রতি একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে এবং এই ভিডিওটি রীতিমত অবাক করে তুলেছে নেট পাড়ার মানুষজন কে । কেন? তার কারণ জলের মধ্যে রয়েছে চারটি হিং-স্র বা-ঘ এবং গা-ছের ডা-লে ঝু-লছে একটি হনুমানের বাচ্চা । বা-ঘ গু-লি অপেক্ষায় রয়েছে যে কখনো হনুমানের বাচ্চার জলের মধ্যে প-ড়ে যা-বে আর তা-কে ছিঁ-ড়ে খা-বে । কিন্তু তার থেকে অনেক বেশি চালাক সেই হনুমানের বাচ্চা টি।

দেখা যাচ্ছে ভিডিওতে যে জলের মধ্যে একটি কলা পড়ে রয়েছে এবং সে কলাটিএক নেওয়ার জন্য হনুমানের বাচ্চাটি সরু একটি ডাল ধরে জলে নামাজ চেষ্টা করছে । ততক্ষনে বাঘেরা অপেক্ষা করছে সেই হনুমানের জন্য । কিন্তু সেই চারটি হনুমানের চোখ এড়িয়ে ছু মেরে সেটিকে মু-খে ক-রে নি-য়ে আবার পুনরায় গাছে উঠে যায় হনুমানের বাচ্চাটি কিন্তু সে বা-ঘ গু-লি তাকে কিছুই করতে পারল না । অ-বাক ক-রা ভিডিওটি ভাইরাল মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে সর্বত্র । এসেছে প্রচুর মন্তব্য ।

About 24Ghanta News

Check Also

বড় কো-বরা ও কুকুরের মধ্যে তু-মুল ল-ড়াই, কো-ব’রার এক ছো-বলেই কা-ত হলো কুকুর, তু-মুল ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- মাঝেমধ্যেই সাপের অনেক ধরনের ভিডিও ফুটে ওঠে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে । কখনও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *