Breaking News

পরনে চুড়িদার, পথচলতি রাস্তার মধ্যেই জনপ্রিয় হিন্দি গানে উ-দ্দা-ম নাচ সুন্দরী তরুণীর, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- এই প্রজন্মের সমস্ত ছেলে মেয়েদের প্রতিভা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে প্রতিনিয়ত ভাইরাল হচ্ছে । ছড়িয়ে প-ড়ছে পৃথিবীর আনাচে কানাচে । এবং তাদের এই প্রতিভা দেখে রীতিমতো তারা হয়ে উঠছে জনপ্রিয় । এই নাচের বিভিন্ন ধরন রয়েছে । অনেকে আনন্দ পাওয়ার জন্য নাচ করে অনেকে আবার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত হয়ে নাচ করে । দুই প্রকার নাচে কিন্তু বর্তমান যুগে সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যা-পক প-রিমাণে ভাইরাল এ কথা অস্বীকার করার কোনো উপায় নেই ।

সম্প্রতি সেরকমই একটি ঘটনা সামনে উঠে এলো। বর্তমানের এই সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে প্রত্যেকের হাতেই মুঠোফোন রয়েছে । এবং প্রত্যেক প্রজন্মের ছেলেমেয়েরা এই সোশ্যাল মিডিয়ার সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত । এই সোশ্যাল মিডিয়া হাত ধরে নিজেকে জনপ্রিয় করে তোলার চেষ্টা প্রত্যেকের মধ্যেই থেকে থাকে । কেউ নাচ কেউ গান কেউ আবার মোটিভেশনাল কিছু কথাবার্তা বলে মন জয় করতে চাই আমাদের ।

এবং মাঝে মধ্যে দেখা যায় সেই সমস্ত ঘটনা গু-লি ঝ-ড়ের গ-তিতে ভাইরাল হয়ে যায় । ছ-ড়িয়ে প-ড়ে সর্বত্র । এবং রাতারাতি তারা হয়ে যায় স্টার। বর্তমান যুগে মেয়েরা ছেলেদের পাশাপাশি যে এই সমাজের অগ্রগতিতে এগিয়ে রয়েছে সে তার প্রমাণ আমরা বহুবার পেয়েছি । শুধুমাত্র অন্যান্য কাজের ক্ষেত্রে নয় নাচ বা গানেও পারদর্শী হয়ে উঠছে বর্তমান প্রজন্মের ছেলেমেয়েরা । এবং তারা তাদের প্রতিভাকে সবার সামনে তুলে ধরেছেন নির্দ্বিধায় ।

কিন্তু এ এক আলাদা চিত্র ফুটে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ার হাত ধরে যা প্রত্যেককে অ-বাক করে তুলেছে । সম্প্রতি একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে যেখানে দেখানো হয়েছে যে একটি মেয়ে রাস্তার ধারে চুরিদার পড়ে জনপ্রিয় একটি গানের সাথে কোমর দুলিয়ে ছিলেন এবং তিনি তার এক্সপ্রেস এর মাধ্যমে সকল কেই ম-ন্ত্রমুগ্ধ করে তুলেছেন । তার নাচের সেই ভিডিওটি ইতিমধ্যে সময়ের সাথে সাথে জনপ্রিয়তা পেয়েছে ব্যা-পক পরিমাণে । তার পাশাপাশি ব-য়ে গে-ছে কমেন্টের ব-ন্যা ।

About 24Ghanta News

Check Also

সিজারে বাচ্চা নেওয়ার অপর নাম নীরব মৃ-ত্যু (মিস করবেন না স্বামী স্ত্রী দুজনেই পড়ুন)!!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-সাধারণত একটি ভ্রূ-ণ ধীরে ধীরে মাতৃগর্ভে বড় হয়ে উঠতে সময় লাগে দশ মাস দশ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *