Breaking News

একসাথে আটটি ছিপ দিয়ে দারুন কায়দায় দুর্দান্ত পদ্ধতিতে একসাথে পাঁচটি বড় মাছ ধরলেন যুবক, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- যেহেতু আমাদের এই পশ্চিমবঙ্গে ৮৬% বাঙালির বসবাস তাই পশ্চিমবঙ্গের মানুষ বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই খাঁটি বাঙালি হবে এমনটা অনুমান করা যেতেই পারে । বিভিন্ন ভাষাভাষী দেশ আমাদের এই ভারত বর্ষ । কিন্তু প্রতিটি রাজ্যের আলাদা জাতির বসবাস রয়েছে । যেমন বিহারে রয়েছে বিহারী গুজরাটে গুজরাথি মহারাষ্ট্রের মারাঠি তামিলনাড়ুতে রয়েছে তেমনই এই বাংলাতে রয়েছে বাঙালি ।

বাঙালি মানেই আবেগ প্রবন বাঙালি মানে দেশকে দেওয়া প্রথম অস্কার । বাঙালি মানে রবীন্দ্রনাথ। বাঙালি মানে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু , মাস্টারদা সহ্য আরো অনেকে যারা স্বাধীনতার জন্য নিজেদেরকে বিভিন্নভাবে বলিদান দিয়েছে । তার পাশাপাশি বাঙালি মানেই যে কথাটি উঠে আসে সেটি হলো মাছ প্রিয় । কথাতে আছে মাছে-ভাতে বাঙালি এবং এই বাঙালিয়ানা ফুটিয়ে তুলতে অনেকেই বিভিন্ন ধরনের মাছ প্রিয় হয়ে থাকে ।তার পাশাপাশি মাছ ধরা ক্ষেত্রে কিন্তু এক অদম্য ইচ্ছাশ’ক্তি দেখা যায় এদের মধ্যে ।

যেমনটা দেখা গেল এই ভিডিওতে । সম্প্রতি একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে এবং এই ভিডিও আমরা হয়তো এর আগে অনেকবার দেখে থাকব । কারণ যেখানে পশ্চিমবঙ্গ বাঙালি অধ্যুষিত অঞ্চল সেখানে মাছ ধরার প্রবণতা প্রবল পরিমাণে থাকবে এমনটা খুব স্বাভাবিক । সেই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে গ্রামের বেশ কয়েকজন যুবক একটি জলাশয়ের ধারে বসে মাছ ধরছে । এবং অনেকগুলি বরশি একসাথে জলের মধ্যে ফেলেছে।

কিন্তু হঠাৎ করে একটি ব-ড়-শিতে টা-ন অনুভব করে এক যুবক । তৎক্ষণাৎ সে সেটিকে জলের উপরে তুলে আনার চেষ্টা করে ।কিন্তু তুলে আনা প্রায় অসম্ভব হয়ে উঠেছিল তার পক্ষে । সেই থেকে তার অনুমান করেছিলো যে বেশ বড় একটি মাছ তার মধ্যে আ-টকা প-ড়েছে । যেমন চিন্তা তেমন ই বাস্তব । জল থেকে যখন সেটি তুলে আনা হলো তখন দেখা গেল যে মস্ত বড় কাতলা মাছ আ-টকা প-ড়েছে তার মধ্যে যা দেখে খুশি সেই যুবক এবং তৎক্ষনাত সেটিকে একটি জায়গাতে ভরে নিয়ে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দেয় ।

About 24Ghanta News

Check Also

সিজারে বাচ্চা নেওয়ার অপর নাম নীরব মৃ-ত্যু (মিস করবেন না স্বামী স্ত্রী দুজনেই পড়ুন)!!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-সাধারণত একটি ভ্রূ-ণ ধীরে ধীরে মাতৃগর্ভে বড় হয়ে উঠতে সময় লাগে দশ মাস দশ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *