Breaking News

লাল কাপড় দেখানোয় বাইকে থাকা দুই ব্যক্তিকে স-জো’রে তা-ড়া করল মোষ, তু-মু-ল ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন:স্মার্টফোনের সহজলভ্যতার ফলে আমরা আজকাল খুব সহজেই ঘরে বসে পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গার খবর মুঠোফোনে পেয়ে যাচ্ছি। আজকাল আর মানুষকে গণমাধ্যমের ওপর নির্ভরশীল থাকতে হয় না।অনেক বিশেষজ্ঞদের মতে বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়া বিভিন্ন টেলিভিশন এবং সংবাদপত্রের মত গণমাধ্যম এর থেকেও বেশি শ-ক্তিশা-লী হয়ে উঠছে।

তবে হয়তো এখনো পর্যন্ত এগুলির জায়গা দখল করতে পারেনি। যেকোন খবর,ছবি বা ভাইরাল ভিডিও আমরা খুব সহজেই ইন্টারনেট ব্যবহার করে মুহূর্তের মধ্যে দেখতে পাই। এই ভিডিওগুলি শুধু আমাদের বিভিন্ন জিনিস সম্বন্ধে জানতে সাহায্য করে তা নয়; অনেক ক্ষেত্রেই আমাদের মুখে হাসি আনতে বাধ্য করে।

আবার সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আজকাল অনেকে নিজের প্রতিভার বিকাশ ঘটিয়েও থাকেন।যেমন কিছুদিন আগেই ফেসবুক পেজ থেকে আমরা একটি ভাইরাল ভিডিও দেখতে পেয়েছিলাম যেখানে অসাধারণ কায়দায় কোন রকম বাদ্যযন্ত্র ছাড়াই দুজন মা এবং মেয়ে গান গাইছিলেন। জনপ্রিয় হিন্দি গানে তৈরি তাদের এই ভিডিওটি দর্শকদের বেশ পছন্দ হয়েছিল। বাদ্যযন্ত্র ছাড়াই খালি গলায় এরকম গান কেউ গাইতে পারে তা হয়তো অনেকেই জানেন না। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে মা—মেয়ের ভিডিও সকলের কাছে পৌঁছে গিয়েছিল।

সম্প্রতি একটি ভিডিও নেট দুনিয়ায় ঝড় তুলে দিয়েছে। এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, বাইকে আরোহন করা দুই ব্যক্তিকে আচমকাই তারা করেছে একটি মোষ। প্রসঙ্গত যে কোন পশু বা পাখি কোন মানুষকে এমনি তাড়া করে না। এক্ষেত্রেও ঠিক একই ঘটনা ঘটেছে।ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে ওই দুই ব্যক্তি বাইকে বসে মোষটিকে লাল রঙের কাপড় দেখাচ্ছেন।

এটি দেখার পর ওই বন্য পশুটি অত্যন্ত ক্রুদ্ধ হয়ে গিয়েছে।যার ফলস্বরুপ দেখা যায় বেশ জোরে দৌড়ে বাইরে থাকা ওই ব্যক্তিদের আক্রমণ করতে মরিয়া হয়ে পড়েছে সে। ভিডিওটি কোথাকার তা এখনো পর্যন্ত জানা সম্ভব হয়নি। কিন্তু এই ভিডিওটি বেশ উপভোগ করেছেন নেট নাগরিকরা। চাইলে আপনারাও আমাদের এই ভিডিওটি দেখে আসতে পারেন।

About 24Ghanta News

Check Also

মাঠের মধ্যে বড় গাছের উপরে দুই বড় কো-বরা সাপের মধ্যে উ-দ্দাম ল-ড়া’ই, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন:সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আমরা প্রতিনিয়ত নিত্য নতুন ভাইরাল ভিডিও দেখতে পাই। এই ভিডিওগুলি আমাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *