Breaking News

পুকুরে বাইশ বছর ধরে রয়েছে এই কুমির, হটাৎ এক যুবতী খাবার খাওয়াতে গিয়ে ঘটলো বি-প-ত্তি, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন:স্মার্টফোনের যুগে মানুষের অবসর কাটানোর প্রধান মাধ্যম হয়ে দাঁড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া। সকাল থেকে শুরু করে রাত পর্যন্ত হাতে মোবাইল ফোন না নিলে যেন আমাদের চলেই না। অনেক বিশেষজ্ঞরা তো বর্তমান যুগে সোশ্যাল মিডিয়াকে গণমাধ্যমের থেকেও বেশি শক্তি-শা-লী বলে মনে করছেন। কারণ হিসেবে বলা যায় সম্প্রতি মানুষ টেলিভিশন, রেডিও প্রভৃতির থেকেও বেশি নির্ভর হয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোর উপর।

আট থেকে আশি কেউই বাদ যাননি এই দল থেকে। সব বয়সের মানুষই এই সোশ্যাল মিডিয়ার আনন্দ উপভোগ করছেন। যদিও ব্যতিক্রম কিছু মানুষও রয়েছেন। এরপর আসা যাক সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ পাওয়া ভাইরাল ভিডিও গুলির কথায়।এই ভাইরাল ভিডিওগুলির সংখ্যা ক্রমাগত সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীর সংখ্যার নিরিখে বেড়েই চলেছে। এইখানে নানান ধরনের ভিডিও বেশ চোখে পড়ার মতো। এর মধ্যে অনেকগুলো ভিডিও আমাদেরকে আশ্চর্য করে রেখে দেয়।

সোশ্যাল মিডিয়ায় নানান ধরনের ভয়াবহ ভিডিও ভাইরাল হতে দেখা যায়। যেমন সম্প্রতি একটি কুমিরের ভিডিও সকলকে আশ্চর্য করেছে।বাংলাদেশের এই ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে একটি জলাশয়ে প্রায় 22 বছর ধরে বসবাস করছে একটি কুমির। আচমকাই সেই কুমিরকে খাবার খাওয়াতে যান যুবতী। সেই সময় যুবতীর থেকে কুমিরের দূরত্ব ছিল মাত্র কয়েক হাত। খাবার খাওয়ানোর সময় আচমকাই কিছুটা কাছে চলে আসে কুমিরটি।

যদিও ভিডিওর শেষ অংশে দেখা যায় যুবতী অত্যন্ত সতর্ক থাকার কারণে প্রাণে বেঁচে গিয়েছেন।নেটদুনিয়ায় দ্রুতগতিতে এই ভিডিও ভাইরাল হয়ে চলেছে।প্রসঙ্গত উল্লেখ্য ভিডিওটির কমেন্ট বক্সে অনেকেই এই ধরনের কাজের জন্য নেতিবাচক মন্তব্য করেছেন। তার কারণ আচমকাই কোনরকম প্রশিক্ষণ ছাড়াই এইভাবে খাওয়ানোর কারণে ওই যুবতীর যেকোনো মুহূর্তে বি-প-দ হতে পারত। তাই এই ধরনের কান্ড কখনো ঘটানো উচিত নয়।ইতিমধ্যেই প্রায় মিলিয়ন এর কাছাকাছি দর্শক ভিডিওটিকে দেখে নিয়েছেন।কুমির এবং যুবতীর এই ভিডিওটি নেট দুনিয়ার মানুষকে অত্যন্ত অভিভূত করে ফেলেছে।রইলো বিস্তারিত ভিডিও।

About 24Ghanta News

Check Also

জনপ্রিয় হিন্দি গানে কোমর দুলিয়ে তুমুল নাচলেন যুবতী বৌদি! ঝড়ের বেগে ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :-সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার করে আমরা প্রত্যেকেই জনপ্রিয় হয়ে উঠতে চাই এবং এমনটা যে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *