Breaking News

ইউভান বাইরে যাওয়ার জন্য কাঁচে বা’রি মারছে,দেখে হাসি মা শুভশ্রীর মুখে, ব্যাপক ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-টলিউডের অন্যতম তারকা দম্পতিদের মধ্যে রয়েছেন রাজ চক্রবর্তী এবং শুভশ্রী গাঙ্গুলী।দিন দুয়েক আগেই তাদের তৃতীয় বিবাহ বার্ষিকী পূর্ণ হয়েছে। আপাতত ছোট পুত্র সন্তানকে নিয়ে মহা আনন্দের দিন কাটাচ্ছেন তারা। সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রায় সময়ই তাদের খুশির মুহূর্তের বিভিন্ন ছবি ভাইরাল হয়ে উঠতে দেখা যাচ্ছে।জন্মের পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে “রাজশ্রী” জুটির পুত্র ইউভান। যে কোন সেলিব্রেটির থেকে কম নয় এই শিশুটি। তার বাবা—মায়ের থেকেও অনেক অংশে তার জনপ্রিয়তা অত্যধিক বেশি।

সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রায় প্রতিদিনই ইউভানের বিভিন্ন ছবি এবং ভিডিও ভাইরাল হতে দেখা যায়। তা দেখে আপ্লুত হয়ে পড়েন নেটিজেনরা। কিন্তু সম্প্রতি তার এমন একটি ভিডিও ইন্টারনেটে লক্ষ্য করা গেছে যেখান থেকে চোখ সরাতে পারছেন না কেও।

এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে দেশের এই সংকটজনক পরিস্থিতিতে ঘরবন্দী অবস্থায় থেকে জানালার কাচের ফাঁক থেকে বাইরের পরিবেশ দেখে কাঁচে বারি মারছে ইউভান। পিছনে দাঁড়িয়ে মা শুভশ্রী এই সম্পূর্ণ ঘটনাটির ভিডিও করতে করতে হেসে উঠছেন মাঝে মাঝেই। নিজের সাত মাস বয়সী ছোট্ট শিশুর এই কান্ড কারখানা দেখে মা চুপ করে থাকতে পারেননি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিওটি শেয়ার করা মাত্রই তা দর্শকদের কাছে অত্যন্ত পছন্দের হয়ে উঠেছে। ইউভানের এই খুনসুটি সকলেই পছন্দ করেছেন তবে এই মুহূর্তে বাইরের পরিবেশে তার বেরোনো যে একেবারেই উচিত নয় সেই বিষয়তেও কমেন্ট বক্সে অনেকেই শুভশ্রীকে সতর্ক করেছেন। মূলত ভিডিও দেখে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে, বাইরে যাওয়ার জন্যই এরকম ব্যবহার করছে খুদে শিশুটি।

চাইলে আপনারাও রাজপুত্রের এই ভিডিওটি দেখে আসতে পারেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য কিছুদিন আগেই মাতৃ দিবস এবং রবীন্দ্রজয়ন্তী উপলক্ষে রীতিমতো বাঙালি সাজে দেখা গিয়েছিল এই তারকা সন্তানকে। সেই সাজে তাকে কোন রাজ—পুত্রের থেকে কম লাগছিল না। কিন্তু মাঝখানে মা শুভশ্রী ভাইরাস আক্রান্ত হওয়ায় কিছুটা মনমরা হয়ে গিয়েছিল ইউভান। তবে বর্তমানে মায়ের কাছে ফেরত আসতে পেরে খুব খুশি রয়েছে এই শিশুটি।

About 24Ghanta News

Check Also

সিজারে বাচ্চা নেওয়ার অপর নাম নীরব মৃ-ত্যু (মিস করবেন না স্বামী স্ত্রী দুজনেই পড়ুন)!!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-সাধারণত একটি ভ্রূ-ণ ধীরে ধীরে মাতৃগর্ভে বড় হয়ে উঠতে সময় লাগে দশ মাস দশ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *