Breaking News

আচমকাই বড় ভা-ঙ্গন দেখা দিলো গঙ্গায়, নিমেষের মধ্যেই বড় বড় দা’লান বাড়ি মিশে গেলো নদীতে,ঝ-ড়ে-র গতিতে ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন:বর্তমান সময়ে আমাদের জন্য নেট মাধ্যম একটি বড় প্ল্যাটফর্ম হিসেবে ধরা দিয়েছে। এই নেট মাধ্যমের সাহায্যে খুব সহজেই আমরা যে কোন কাজ করতে পারছি।যেমন কিছুদিন আগেই জানা গিয়েছিল করোনা পরিস্থিতিতে সোশ্যাল মিডিয়াগুলি অত্যন্ত সহায়ক হয়ে উঠেছে মানুষের জন্য। প্রায় সব ধরনের সাহায্য পাওয়া যাচ্ছে এই ইন্টারনেটের সাহায্যে। এমনকি অনেক জায়গাতে মানুষের প্রাণ বাঁচানোর ক্ষেত্রে এগিয়ে এসেছে সোশ্যাল মিডিয়া।

তাই দেখা যাচ্ছে দিন প্রতিদিন এর ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। যদিও এই ব্যবহারের ওপর নিয়ন্ত্রণ সৃষ্টি করা উচিত বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।কারণ অতিরিক্ত সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করার ফলে আমাদের উপর বিভিন্ন মানসিক প্রভাব পড়ছে।

অনেক বিশেষজ্ঞরাই জানিয়েছেন অতিরিক্ত নেট মাধ্যমে থাকার দরুন টিনএজারদের মধ্যে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দিয়েছে। হয়তো অভিভাবকদের অন্যমনস্ক থাকার কারণে এই সব সমস্যার মোকাবিলা করতে পারা সম্ভব হচ্ছে না। যার ফলস্বরুপ বেড়েই চলেছে বিভিন্ন সাইবার অপরাধের সংখ্যা। কিন্তু তবুও নেট মাধ্যম ব্যবহার করতে ছাড়েননি কিছু মানুষ।

সম্প্রতি ফেসবুকে একটি ভ-য়া-বহ ভিডিও ভাইরাল হতে দেখা দিয়েছে। যে ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, হঠাৎ করেই গঙ্গার ভা-ঙ-নের ফলে, নিমেষেই জলের তলায় তলিয়ে যাচ্ছে সমস্ত বাড়িঘর, গাছপালা এবং মানুষজন। এমনকি ভিডিওর শেষ অংশে দেখা যায় এক মহিলাকে হঠাৎ করেই জলের স্রোতে ভেসে যেতে।

উদ্ধারকারীদের একটি দল তাকে বাঁচানোর চেষ্টা করলেও শেষ পর্যন্ত তা সম্ভব হয়ে ওঠেনি। এই দৃশ্য দেখে সকলের চোখেই জল চলে এসেছে। অনেকেই এই ঘটনাকে ঈশ্বরের ক্রো-ধ বলে চিহ্নিত করেছেন। আবার অনেকেই এরকম দুর্যোগ সৃষ্টি হওয়ার জন্য মানুষকেই দায়ী করেছেন।

এই ভিডিওটি আপনিও চাইলে দেখে আসতে পারেন।তবে হয়তো যেকোনো দুর্বল হার্টের মানুষের পক্ষে এই ভিডিওটি না দেখাই উচিত। আমরা আশা করব পৃথিবীর কোন অংশের মানুষকেই যেন এই ধরনের বি-প-র্যয়ের মুখোমুখি হতে না হয়।প্রকৃতির সাথে মানুষের সম্পর্ক বহুকালের এবং এই সম্পর্ক যেন চিরকাল একই ভাবে বজায় থাকে।

About 24Ghanta News

Check Also

সিজারে বাচ্চা নেওয়ার অপর নাম নীরব মৃ-ত্যু (মিস করবেন না স্বামী স্ত্রী দুজনেই পড়ুন)!!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-সাধারণত একটি ভ্রূ-ণ ধীরে ধীরে মাতৃগর্ভে বড় হয়ে উঠতে সময় লাগে দশ মাস দশ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *