হটাৎ নিজের গ্রামে ভিড় ঠেলে গামছা মাথায় ও মুখে মাস্ক দিয়ে ঘুরে বেড়ালেন অরিজিৎ সিং, তু-মুল ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন:জনপ্রিয় গায়ক অরিজিত সিং কে আমরা সকলেই কম বেশি চিনি। কথায় রয়েছে, অরিজিতের গান যেকোনো সুখী মানুষ কেও কাঁদতে বাধ্য করে দেয়। অসাধারণ কন্ঠের অধিকারী এই গায়ক ব্যক্তিগত জীবনে অত্যন্ত সাধারণ ভাবে থাকতে ভালোবাসেন। একেবারে ঘরের ছেলে হিসেবে সব সময় দেখা যায় তাকে।

এমনকি তিনি এতটাই সাধারণ যে কোন বড় অনুষ্ঠানে হাওয়াই চটি পড়ে যেতেও বিব্রতবোধ করেন না। স্ত্রী এবং সন্তানকে নিয়ে বর্তমানে সুখের সংসার করছেন অরিজিত সিং। মাঝে মাঝেই সোশ্যাল মিডিয়ায় তার নানান ধরনের ভিডিও ভাইরাল হতে দেখা যায়।যেমন কিছুদিন আগেই একটি ভাইরাল ভিডিও তে দেখা গিয়েছিল মঞ্চে গান গাইছেন অরিজিত।

আচমকাই দর্শকদের মধ্যে থাকা এক যুবতী তার দিকে কিছু টাকা খুশী হয়ে ছুড়ে দেন।নিজের শিল্পীসত্তার এহেন অপমান মেনে নিতে পারেননি অরিজিত।কিছুক্ষণের জন্য প্রকাশ্য মঞ্চেই গান থামিয়ে এই টাকাগুলি কুড়িয়ে নেন তিনি। এরপর দেখা যায় মুখে হাসি বজায় রেখে ওই যুবতীর হাতে টাকা গুলি তুলে অরিজিত বলেন, এভাবে বিনা কারণে টাকা নষ্ট না করতে। অরিজিতের এই কান্ড কারখানা দেখে প্রশংসা ছড়িয়ে পড়েছিল নেটিজেন মহলে।এই পরিস্থিতিতে আবারো একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে গায়ক কে নিয়ে।

অসাধারণ এই ভাইরাল ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে একেবারেই সাধারণ বেশেঅরিজিৎ সিং মাথায় গামছা বেঁধে মুখে মাস্ক পরে একদম সাধারন ভাবে গ্রামের রাস্তা দিয়ে হাটছেন। তাকে দেখে মনেই হচ্ছে না তিনি একজন এত বড় মানুষ।সাধারণত সেলিব্রিটিরা সাধারণ মানুষের মধ্যে যেতে চান না,কিন্তু অরিজিৎ সিং এই দিক থেকে একেবারেই ব্যতিক্রম। তার এই মহানুভবতা মুগ্ধ করে দিয়েছে মানুষকে।

ভিডিওটি পোস্ট করা হয়েছে মোহন বর্মা নামে এক ব্যক্তির ফেসবুকের প্রোফাইল থেকে। মুহূর্তের মধ্যেই অরিজিতের সকল অনুরাগীরা এই ভিডিওটিকে শেয়ার করতে শুরু করে দিয়েছেন। ভিডিওটির কমেন্ট বক্সে অনেকেই এই গায়কের প্রশংসা করেছেন।ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড জয়ী এই গায়ক যে এতটা সাধারণভাবে রাস্তা দিয়ে চলতে পারেন তা হয়তো কখনোই কেউ ভেবে উঠতে পারেননি। চাইলে আপনারাও অসম্ভব সুন্দর এই ভিডিওটি দেখে আসতে পারেন। অরিজিত সিং এর ভক্তদের জন্য এই ভিডিওটি একটি আলাদাই অস্তিত্ব বহন করবে তাতে কোনো রকম সন্দেহ নেই।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button