হনুমান শি’কার করতে গিয়ে বিশাল গাছের মগডালে উঠে পড়ল সিংহীটি! ঘটলো চ’রম বি’পত্তি! দারুন ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- কথিত আছে গল্পের গরু গাছে চরে । কিন্তু বাস্তবে এর চিত্র দেখা যেতে পারে অন্যরকমভাবে । সেটা হয়তো অনুমান করতে পারেনি এর আগে কেউ । এখানে গরু নয় বরং একটি হিং-স্র সিংহ গাছের মগডালে চেপেছে একটি হনুমানের বাচ্চা কে শি-কার করতে । তারপর কি ঘটনা ঘটল তা সম্পূর্ণ রকম ভাবে দেখানো হয়েছে এই ভিডিওতে । তার পাশাপাশি এই ভিডিওটা আলাদা মাত্রা উ-ত্তেজনা সৃষ্টি করেছে প্রথম দিক থেকেই । সেটি সম্পর্কে নতুন করে বলার অপেক্ষা রাখে না ।

সাধারণত সিংহ হল স্তন্যপায়ী প্রাণী । প্রজাতির মধ্যে সবথেকে শক্তিশালী প্রাণী। এশিয়ার প্রায় সমস্ত জায়গাতেই অর্থাৎ বেশ কয়েকটি জায়গা ছাড়া অধিকাংশ সমস্ত জায়গায় বাঘ বা সিংহ দেখতে পাওয়া যায়। এই বাঘ কে দেখার জন্য অনেকে অনেক কৌতুহলী হয়ে থাকে । ধৈর্যের সাথে বসে থাকে ঘন্টার পর ঘন্টা জঙ্গলের আসে পাশে। কিন্তু আপনি যদি সত্যি ভালো খুব সহজে বাঘ বা সিংহ দেখতে চান তাহলে উত্তরপ্রদেশে বান্ধবগড়ের একটি জঙ্গলে যেতে পারেন। সেখানে মিলবে এদের দেখা ।

যারা বনে জঙ্গলে বসবাস করে তাদেরকে প্রতিনিয়ত সংগ্রাম করে জীবন যাপন করতে হয় এই সংগ্রাম অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার সংগ্রাম কাজেই কেউ যদি নিজের অস্তিত্ব বাঁচিয়ে রাখতে চায় তাহলে তাকে প্রতিদিনই লড়াইয়ের সম্মুখীন হতে হবে এই ঘটনা প্রমাণ আমরা বিভিন্ন মাধ্যমে পেয়েছি এর আগে সম্প্রতি পেলাম আরো একবার ।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়াতে একটি ভিডিও যথেষ্ট পরিমাণে ভাইরাল হয়েছে । সেখানে দেখা যাচ্ছে যে গাছের মগডালে বসে রয়েছে একটি হনুমান এর বাচ্চা এবং সেটিকে দেখতে পায় জ-ঙ্গলে থাকা ক্ষুধার্ত একটি সিংহ । সে তৎক্ষণাৎ প্র-চন্ড গ-তিতে গাছের মগডালে উঠে যায় । ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে চিতাবাঘ টি গাছের ডালে মধ্যে থাকা হনুমান এর বাচ্চা কে আক্রমণ করতে চাইছে প্রাণপণে । এবং অবশেষে সে আ-ক্রমণ করতে অক্ষম হয় ।

অপরদিকে হনুমানের বাচ্চা টি গাছের মগডাল থেকে লাফিয়ে মাটিতে নামিয়ে তারও কোনো উপায় ছিল না তার কাছে কারন ততক্ষনে গাছের নিচে উপস্থিত হয়ে গেছে আরও একটি হিং-স্র সিংহ যদিও ভিডিওর একদম শেষ প্রান্তে কি ঘটেছে তা সম্পূর্ণ রকম ভাবে দেখানো হয় তবে এই ভিডিওটির মাধ্যমে আলাদা মাত্রা সৃষ্টি করেছে । ইতিমধ্যে ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়েছে সর্বত্র । এসেছে প্রচুর মন্তব্য ।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button