22 লক্ষ ইউজারদের অ্যাকাউন্ট ব্যান করলে হোয়াটসঅ্যাপ! জেনে নিন আসল কারণ!

আকাশবার্তা অনলাইন ডেস্ক: জনপ্রিয় ইনস্ট্যান্ট ম্যাসেজিং অ্যাপ হিসেবে হোয়াটসঅ্যাপ তাদের বিভিন্ন গ্রাহকের বিরুদ্ধে নিচ্ছে কড়া পদক্ষেপ। ফেসবুক পরিচালিত এই মেসেজিং অ্যাপ ইন্টারনেটের অপব্যবহার এবং ব্যাপক পরিমাণে অবাঞ্ছিত ও ক্ষতিকারক মেসেজ প্রেরণের জন্য নিষিদ্ধ বা ব্যান করেছে একাধিক অ্যাকাউন্ট। ইতিমধ্যেই আমাদের হাতে এসেছে সেপ্টেম্বর মাসে ব্যান হওয়া হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টের নথি। যা শুনলে আপনিও অবাক হবেন। তাই এবার থেকে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করার আগে এবং অবাঞ্ছিত মেসেজ করার পূর্বে হাজার বার ভাববেন নতুবা আপনার অ্যাকাউন্টও চলে আসতে পারে ব্যান হওয়া অ্যাকাউন্ট তালিকায়। সাধারণত ব্যবহারকারীদের নিরাপত্তা দেওয়ার জন্যই এই সিদ্ধান্ত হোয়াটসঅ্যাপের।

কত অ্যাকাউন্ট ব্যান হল সেপ্টেম্বর মাসে?তথ্য প্রযুক্তি বিধি ২০২১ -এর ভিত্তিতে প্রকাশিত হোয়াটসঅ্যাপের মাসিক কমপ্লায়েন্স রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে, গত সেপ্টেম্বর মাসে ২.২০৯ মিলিয়ন বা ২২.০৯ লক্ষ গ্রাহকের তথা ভারতীয়র অ্যাকাউন্ট ব্যান করেছে সংস্থা। চতুর্থ মাসিক ট্রান্সপারেন্সি রিপোর্ট অনুযায়ী, সেপ্টেম্বর মাসে ব্যবহারকারীরা এবং গ্রিভেন্স অফিসার মোট ৩০৯ টি অ্যাকাউন্ট ব্যান করার পরামর্শ দিয়েছেন । যার মধ্যে ৫০ টি অ্যাকাউন্টের ওপর রীতিমত অ্যাকশন‌ নিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ। একইসাথে ৫৬০ টি ইউজার রিপোর্ট পেয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ এবং এর মধ্যে ৩০৯ টি নিষেধাজ্ঞা আবেদন এবং ১২১ টি অ্যাকাউন্ট সাপোর্ট সম্পর্কিত প্রশ্ন তুলেছে গ্রাহকরা। পাশাপাশি প্রোডাক্ট ও‌ অন্যান্য সাপোর্ট সম্পর্কিত ৪৯ টি রিপোর্ট এবং সুরক্ষা সম্পর্কেও ৩২ টি রিপোর্ট পেয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ।

কীভাবে অ্যাকাউন্ট ব্যান করে হোয়াটসঅ্যাপ?এই মেসেজিং অ্যাপের অপব্যবহার রুখতে নিজস্ব টুলস এবং টেকনিক ব্যবহার করে হোয়াটসঅ্যাপ। যার মাধ্যমে অ্যাকাউন্ট রেজিস্ট্রেশনের সময় কিংবা ম্যাসেজ চলাকালীন অথবা নেগেটিভ ফিডব্যাক রেসপন্স দেওয়ার সময় ক্ষতিকারক আচরণ শনাক্ত করতে পারে হোয়াটসঅ্যাপ। এবং তারপরেই সেই অ্যাকাউন্টের ওপর নির্দিষ্ট অ্যাকশন নেওয়া হয় এবং অ্যাকাউন্ট ব্যান করা হয়। সুতরাং একথা বলাই যায়, গ্রাহকদের নিরাপত্তা দিতে কোনোরকম অবিবেচনাপ্রসূত আচরণে ছাড় দেবেনা হোয়াটসঅ্যাপ।

\

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button