পরনে হলুদ শাড়ি, জনপ্রিয় গানে ঘরের ভেতরেই দুর্দান্ত নাচ পাঁচ খুদে শিশুর,তুমুল ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন:সোশ্যাল মিডিয়া বর্তমান যুগের জন্য এখন অনন্য প্লাটফর্মে রূপান্তরিত হয়েছে। যেখানে আমরাপ্রতিনিয়ত নানান ধরনের ভিডিও ভাইরাল হতে দেখি। এই ভিডিওগুলি ক্রমশ আমাদের মনে জায়গা সৃষ্টি করে নেয়।স্মার্টফোনের সহজলভ্যতার দৌলতে দিন প্রতিদিন ইন্টারনেটের ব্যবহার যেন বেড়েই চলেছে।

মাত্র কিছু টাকার এমবি কিনে আমরা খুব সহজেই সোশ্যাল মিডিয়ার অ্যাপ্লিকেশনগুলি ডাউনলোড করে তা ব্যবহার করতে পারি। প্রথম দিকে এসব অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার নিয়ে মানুষের মনে দ্বিধাগ্রস্ততা থাকলেও বর্তমানে তা প্রায় মুছে গিয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়াকে মানুষ কাজের ক্ষেত্র থেকে শুরু করে নিজেদের প্রতিভার বিকাশ করার একটি জায়গা হিসেবে ভাবছেন।

গত বছর লকডাউন এর সময় থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ার জনপ্রিয়তা হঠাৎ করেই যেন আরও বৃদ্ধি পেয়ে গিয়েছে।কারণ এই সময়ে মানুষ ঘরবন্দি অবস্থায় থেকে সোশ্যাল মিডিয়াকেই সময় কাটানোর হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করেছিলেন। এখানে প্রতিনিয়ত মানুষ নানান ধরনের নাচ—গানের ভিডিও, আবৃত্তি, রান্না প্রভৃতির ভিডিও শেয়ার করতেন।

এগুলি কিছু মানুষকে ব্যক্তিগতভাবেও জনপ্রিয়তা অর্জন করতে সাহায্য করেছে। লকডাউন এর সময় ঘরে বসে না থেকে অনেক মানুষ নিত্যনতুন রান্না তৈরীর আয়োজন করেছিলেন। এছাড়াও আমরা সেই সময়ে এক অসাধারণ যুবতীর গান ভাইরাল হতে দেখেছিলাম যিনি কোনো রকম বাদ্যযন্ত্র ছাড়াই খালি গলায় রবীন্দ্র সংগীত গাইছিলেন।

সম্প্রতি আবারও সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইটে অসাধারণ একটি ভিডিও লক্ষ্য করা গিয়েছে। যেই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে হলুদ রঙের শাড়ি পড়ে একটি অসাধারণ বাংলা গানে খুব সুন্দর ভাবে পাঁচ খুদে শিশু নাচ করছে। তাদের সকলের বয়স খুব বড়জোর ৫—৬ এর মধ্যে। তারা রীতিমতো প্রশিক্ষণ নিয়ে নাচ করছে তা স্পষ্টভাবে বোঝা যাচ্ছে।

নাচটি সম্পূর্ণরূপে পারফেক্ট না হলেও নেট নাগরিকদের মন জয় করে নিয়েছে তাতে সন্দেহ নেই।এত কম বয়স হওয়া সত্ত্বেও যেভাবে তারা এক অসাধারন নাচ উপস্থাপন করেছেন তা অবশ্যই প্রশংসার যোগ্য। তুমুল ভাইরাল এই ভিডিওটি চাইলে আপনারাও দেখে বন্ধু-বান্ধবদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। এবং অবশ্যই নিজের মতামত জানাতে ভুলবেন না।

সোশ্যাল মিডিয়াতে এরকম ধরনের ভিডিও প্রতিনিয়ত ভাইরাল হতে থাকে। দিন কয়েক আগেই আমরা এমন একজন মা ও মেয়ের ভিডিও দেখেছিলাম যারা কোনো রকম বাদ্যযন্ত্র ছাড়া খালি গলায় নব্বই দশকের জনপ্রিয় সব হিন্দি সিনেমার গান গাইছিলেন।

মায়ের বয়স প্রাপ্ত বয়স্ক হলেও সেই মেয়ের বয়স কিন্তু ৬—৭ এর বেশি হবে না। মা-মেয়ের যুগলবন্দীতে এই অসাধারন গান শুনে সকলেই অবাক হয়ে গিয়েছিলেন। নেট দর্শকদের কাছে অত্যন্ত ভালোবাসা পেয়েছিল এই ভিডিওটি। শেয়ার হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই তুমুল পরিমাণে ভাইরাল হয়েছিল। প্রায় মিলিয়ন এর কাছাকাছি দর্শক সংখ্যা ছিল এটির।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button