ছুটির দিনে বাড়িতে এই পদ্ধতিতে একবার মুরগির মাংস রান্না করে দেখুন! সকল আঙ্গুল চেটে খাবে! রইল রেসিপি।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- উৎসবের আমেজে ভালোমন্দ খাওয়া দাওয়া লেগেই থাকে প্রতিটি বাঙালির কাছে। উৎসব মানেই নতুন ধরনের কিছু রেসিপি বাড়িতে চেষ্টা করা বা রেস্তোরাঁ থেকে হৈ-হুল্লোড় আনন্দ করে বন্ধু বান্ধবীদের সাথে খাওয়া-দাওয়া পর্ব সারা। কিন্তু যদি আপনাদেরকে এই মুহূর্তে মনটা বলা হয় যে বাড়িতে এই দোকানের মতন চিকেন রান্না করে নিতে পারবেন অভিনব এই পদ্ধতিতে তাহলে কি আপনি অবাক হবেন?

অবাক হবার কোন কারণ নেই অতি সহজে স্বল্প সময়ে অভিনব পদ্ধতিতে বাড়িতে কিভাবে চিকেন রান্না করবেন একেবারে রেস্তোরাঁর মতন জেনে নিন বিস্তারিত ভাবে। চিকেন তৈরি করার জন্য অবশ্য একটি বড় কড়াই এর দরকার পড়বে। তার পাশাপাশি দরকার পড়বে পেঁয়াজ টমেটো জিরা ধনে আদা রসুন ইত্যাদি সমস্ত উপকরণ গুলি। প্রথমে মাংস টুকরোগুলোকে ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে

এবং তার মধ্যে দিতে হবে এক চামচ নুন এক চামচ লঙ্কাগুঁড়ো সামান্য পরিমাণ হলুদ এবং এক চামচ আদা বাটা জিরা বাটা ধনে বাটা এবং লঙ্কাবাটা। এরপর সমস্ত উপকরণ গুলি কে হাতের সাহায্যে ভালো করে মাখাতে হবে বেশ কিছুক্ষণ ধরে। তারপর ঢাকা দিয়ে রেখে দিতে হবে কিছুক্ষণ। অর্থাৎ আপনি খুব সহজ-সরল ভাষায় বলতেই পারেন যে মটনের টুকরোগুলোকে মেরিনেট করে রাখতে হবে কিছুক্ষণ ধরে।

এরপর কড়াই মধ্যে তেল দিতে হবে এবং তার মধ্যে দিতে হবে আগে থেকে ছোট ছোট করে কেটে রাখা পেঁয়াজ গুলিকে । বেশ ভালো করে পেঁয়াজ গুলিকে ভেজে নিতে হবে এবং তুলে রাখতে হবে অন্য একটি পাত্রে ।সেই তেল এর মধ্যেই আপনাকে দিতে হবে সামান্য পরিমাণ পাঁচফোড়ন এবং আগে থেকে রাখা ভাজা মশলা গুঁড়ো । তারপর তার মধ্যে আদা বাটা রসুন বাটা লঙ্কা বাটা জিরে ধনে বাটা সামান্য পরিমাণ নুন এবং এক চামচ পরিমাণ হলুদ এই সমস্ত উপকরণ গুলো প্রায় ৫-৭ মিনিট ধরে ভালো করে কষিয়ে নিতে হবে।

তারপর তার মধ্যে যোগ করে দিতে হবে আগে থেকে ম্যারিনেট করে রাখা মাংস টুকরো গু-লিকে। এরপর ঢাকা দিয়ে রেখে দিতে হবে সেটিকে কিছুক্ষণ। তাহলে মাংস থেকে জল বের হয়ে যাবে। এই জলকে কমিয়ে আনার জন্য প্রতিনিয়ত আপনাকে ফুটতে দিতে হবে মাংস টিকে। এতে মাংস সেদ্ধ হবে তার পাশাপাশি জল কমে আসবে। এই পদ্ধতিতে কিছুক্ষণের মধ্যেই তৈরি হয়ে যাবে কষা মাংস। বড় বড় রেস্তোরাঁতে দাম দিয়ে যে সমস্ত কষা মাংস আপনারা খান সেটা কম দামে তৈরি করে নিতে পারেন আপনি আপনার বাড়িতে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button