আনমনে ঘুমিয়ে ছিলেন যুবতী, খাটের পাশ থেকে ফ-না তুলে উঠল বিশাল বি-ষধ’র সাপ, তু-মু’ল ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-সোশ্যাল মিডিয়াতে আমরা কখনো কখনো এমন কিছু ধরনের ঘটনা দেখে থাকি যেগুলি আমাদেরকে অবাক করে তোলে । তার পাশাপাশি করে তোলে হতভম্ব ।এই সমস্ত ঘটনাবলি আগেকার যুগের বি-র-ল ঘটনা হলেও প্রতিনিয়ত সোশ্যাল মিডিয়ার হাত ধরে আমাদের সামনে উঠে আসার ধরুন এই ঘটনাগুলো কিন্তু আমাদের কাছে নিত্য প্রয়োজন প্রতিদিন সহজাত ঘটনায় পরিণত হয়েছে । এই ঘটনা যেন তারই প্রমাণ ।

সাধারণত দিনে-দুপুরে সাপের কথা শুনলে আমরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ি । কারণ সাপের বি-ষ যদি কোনো কারণে শরীরের মধ্যে প্রবেশ করে তাহলে হয়তো আর মানুষকে ফিরিয়ে আনা যায় না । কখনো কখনো এমন ঘটনা দেখা গেছে এ সাপের এক ছো-ব-লে মুহূর্তের মধ্যে প্রাণ হারিয়েছে অনেক ব্যক্তি । আগেকার যুগে এই ধরনের ঘটনা বেশি ঘটছে । কারণ তখন ছিল না কোনো হাসপাতাল বা উন্নত চিকিৎসা ব্যবস্থা বর্তমানে তা অনেকাংশে কমে এসেছে ।

এই সাপের কথা বলতে গেলে যে কথাটি না বললেই নয় যে সাপের বিষ যদি শরীরে কোনো কারণে প্রবেশ করে এবং যদি আমরা সঠিক উপায়ে কম সময়ের মধ্যে হাসপাতালে সেই ব্যক্তিকে নিয়ে যেতে পারি তাহলে কিন্তু বেঁচে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে বেশি পরিমাণে অর্থাৎ অধিক পরিমাণে । কিন্তু যেহেতু আমরা অনেকেই কুসংস্কারের দ্বারস্থ এখনো অব্দি তাই সাপে কাম-ড়া-লে এখনো অনেক গ্রামেগঞ্জে ওঝা দিয়ে ঝাড়ফুঁক করা হয় ।যার ফলে অনেক দেরি হয়ে যায় এবং সেই ব্যক্তি বা মহিলাকে বা যাকে সাপে কামড়েছে তার মৃ-ত্যু ঘটে সেখানেই । কাজে এই ধরনের কাজ থেকে আমাদের বিরত থাকতে হবে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে ভিডিওটি প্রকাশিত হয়েছে ইউটিউবে সেখানে দেখা যাচ্ছে যে একটি মাটির বাড়ির শোবার ঘরে লুকিয়ে ছিল বিষাক্ত কো-ব-রা সাপ । যেখানে খাট এর লয়ের সাথে একটি কোবরা সাপ যা দেখে আ-ত-ঙ্কি-ত হয়ে পড়ে সেই ঘরের বাসিন্দারা ।তারা ভেবে কূলকিনারা পাচ্ছিলেন না যে কি করবেন ।। তখন তারা স্থানীয় এক সাপুড়ে কে খবর দেয় ।বেশ কিছুক্ষণের মধ্যে সেখানে উপস্থিত হয় প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সাপুড়ে ।তিনি জানান যে সাপটির নাম কো-ব-রা সাপ এবং সে প্রচন্ড পরিমাণে রেগে রয়েছে ।

যার ফলে যেকোনো সময় যেকোনো মানুষকে ছো-ব-ল মারতে পারে । আর এই ধরনের সাপ খুব ভালো করে জানে যে মানুষের কোথায় ছো-ব-ল মা-র-লে তার কাজ তাড়াতাড়ি হয় । অবশেষে অনেক রকম চেষ্টাচরিত্র করার পর সেই সাপুড়ে সাপ থেকে ধরে নিয়ে চলে যায় নি-রা-প-দ কোন জায়গায় ছেড়ে দেবে বলে ।তার পাশাপাশি যে আ-ত-ঙ্ক ছড়িয়ে ছিল গোটা পরিবারের তা কিছুটা কমতে শুরু করে সময়ের সাথে সাথে ।ইতিমধ্যে ভিডিও ধীরে শুরু হয়েছে উত্তেজনা এবং টান টান পরিবেশ ।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button