এই ব্যাংকগুলো তে ঢুকবেনা লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের টাকা! প্রকাশিত হল অফিসিয়াল নোটিস! জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- রাজ্যের বুক ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গেছে লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের কাজ কর্ম । এবং ব্যাংকের একাউন্টে গ্রাহকদের টাকা পয়সা প্রবেশ করতে শুরু করে দিয়েছে । কিন্তু যে বিষয়টি নিয়ে এখনো পর্যন্ত ধোঁয়াশা কাটেনি সেটি হল ব্যাংক অ্যাকাউন্ট । অনেকের ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে আবেদনপত্র সঠিকভাবে পূরণ করার পরও ব্যাংক একাউন্টে টাকা প্রবেশ করছে না বা এসএমএস আসেনি । সে ক্ষেত্রে অতি অবশ্যই আপনাকে অফিশিয়ালি নোটিশ একবার ভালোভাবে জেনে নিতে হবে ।

কোন ধরনের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট দিলে টাকা আসবে না তা জানাবো আমরা আজকালের প্রতিবেদন । লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের আওতায় সাধারণত জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে বয়স ২৫ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে হতে হবে । সরকারি কর্মচারীরা এই ধরনের আওতায় অন্তর্ভুক্ত হতে পারবেন না ।তার পাশাপাশি জানানো হয়েছে যে স্বাস্থ্য অধিকার থাকা বাঞ্ছনীয় এবং সিঙ্গেল ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থাকা বাঞ্ছনীয় । কিন্তু সবকিছু সঠিক মাত্রায় পূরণ করার পরও দেখা যাচ্ছে অনেকের এই ধরনের সমস্যা দেখা গেছে ।

এবং এই একটি মাত্র ভুল করেন তাহলে কিন্তু আপনার টাকা ব্যাংক অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করবেন না । রাজ্য সরকারের তরফ থেকে যে নোটিশ জারি করা হয়েছে সেখানে আপনি দেখতে পাবেন যে সেখানে উল্লেখ করা রয়েছে আধার কার্ডের ছবি ভোটার কার্ডের ছবি ব্যাংকের পাস বইয়ের ছবি অতি অবশ্যই লাগবে । তার পাশাপাশি লাগবে রঙিন পাসপোর্ট সাইজের তিন কপি ছবি । কিন্তু যে বিষয়টি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সেটি হচ্ছে ব্যাংক ডিটেইলস ।

অর্থাৎ যে টা কাআপনার ব্যাংক একাউন্টে প্রেরণ করা হবে সেই টাকা পেতে গেলে অতি অবশ্যই আপনার আধার কার্ডের সাথে ব্যাঙ্কের লিংক থাকা বাঞ্ছনীয় । যদি কোন কারণে আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের সাথে আধার কার্ড লিঙ্ক না থাকে তাহলে কিন্তু আপনি টাকা পাবেন না । হতে পারে আপনি সম্পূর্ণ সঠিক পদ্ধতিতে আবেদনপত্র পূরণ করেছেন । আপনার মোবাইলে এসএমএস চলে এসেছে । আবেদনপত্র গ্রহণ ও হয়ে গেছে ।

কিন্তু টাকা আপনি পাবেন না যদি আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের সাথে আধার কার্ডের লিঙ্ক না থাকে । তাই লক্ষী ভান্ডার প্রকল্প আবেদন করার আগে অতি অবশ্যই দেখে নিন যে আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের সাথে আধার কার্ড লিঙ্ক হয়েছে কিনা । যে বিষয়টি পরিস্কার ভাবে বলা হচ্ছে সেটি হচ্ছে যে ব্যাংক ডিটেইলস যেটি আপনি প্রদান করছেন সেখানে অতি অবশ্যই ব্যাংকের এম আই সি আর এর উল্লেখ থাকতে হবে ।

যদি আপনি এমন কোন ব্যাংক অ্যাকাউন্ট দিয়ে থাকেন যেখানে ব্যাংকের এমআইসিআর নাম্বার প্রদত্ত না থাকে তখন কিন্তু সে ক্ষেত্রে আবেদনপত্র বাতিল হতে পারে । যেমন ধরুন বিভিন্ন ডিজিটাল পেমেন্ট ব্যাঙ্ক । পেটিইম বা এয়ারটেল ইত্যাদি ব্যাংকে এম আই সি আর নাম্বার নেই সেক্ষেত্রে কিন্তু আপনি যদি এই ধরনের ব্যাংক প্রদান করে থাকেন তাহলে কিন্তু টাকা প্রবেশ করার সম্ভাবনা প্রায় নেই বললেই চলে ।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button