ই-শ্রম কার্ড করা থাকলেই সবাইকে চাকরি দেব সরকার! সাথে পাবেন আরো 21 সুযোগ-সুবিধা! জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন::ই শ্রম কার্ড নিয়ে ইতিমধ্যেই মানুষের মধ্যে নানান ধরনের জল্পনা-কল্পনা চলছে।এই কার্ড কি কি কাজে লাগতে পারে বা কিভাবে মানুষকে সাহায্য করতে পারে তা নিয়ে অনেকের মধ্যেই নানান ধরনের প্রশ্ন এবং চিন্তা রয়েছে। এই কার্ডের মাধ্যমে সকলেই চাকরি পেতে পারেন এছাড়াও প্রায় প্রচুর সুযোগ সুবিধা রয়েছে।

আসুন এই বিষয়ে একটি বিশেষ প্রতিবেদন জেনে নেওয়া যাক। যারা সরকারি চাকরি করতে আগ্রহী রয়েছেন তাদের জন্য এই কার্ড বিশেষ সুযোগ আনতে চলেছে। আধার কার্ড,রেশন কার্ড কিংবা প্যান কার্ডের মতই এই কার্ড অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে।এই কার্ডের মাধ্যমে খুব সহজেই প্রত্যেক ব্যক্তির যোগ্যতা অনুযায়ী কাজ দেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত মন্ত্রী ভূপেন্দ্র যাদব এর উদ্যোগে কেন্দ্রীয় সরকার এই প্রকল্পটি চালু করে।দেশের মধ্যে 38 কোটি কর্মী যারা কাজ করেন তাদেরকে নিয়েই এই প্রকল্প শুরু করা হয়েছে। অসংগঠিত শ্রমিকদের কাজ দেবার উদ্দেশ্যেই এই বিশেষ প্রকল্প। এই ই শ্রম কার্ডকে দু’ভাগে ভাগ করা হয়েছে। প্রথম ভাগে রয়েছে কর্মসংস্থান প্রকল্প। এবং দ্বিতীয় জায়গায় রয়েছে সামাজিক নিরাপত্তা প্রকল্প।

বিভিন্ন গ্রামীণ এবং যোজনার অন্তর্গত করে প্রথমভাগে কর্মীদের কাজ দেওয়া হয়ে থাকে।এবং দ্বিতীয় ভাগে অসংগঠিত শ্রমিকদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করা হয়। নিরাপত্তা অর্থাৎ পেনশন, জীবন বীমা, বার্ধক্য ভাতা, বিধবা ভাতা, দুর্ঘটনায় মৃত্যু হলে সুবিধে এবং চিকিৎসার জন্য নানান ধরনের সুবিধা। এই কার্ডের 10000 টাকা লোন দেওয়ার ও একটি ব্যবস্থা করা হয়েছে।

কিছু কিছু সময় রয়েছে যেখানে সরকারি সাহায্য আমাদের অত্যন্ত প্রয়োজন হয়ে থাকে। এই ই শ্রম কার্ড আমাদের সেই সাহায্য করে দিতে চলেছে।যদি কোনো শ্রমিক দুর্ঘটনায় মা-রা গিয়ে থাকেন তাহলে দু’লক্ষ টাকা এবং যদি দুর্ঘটনায় কোন অঙ্গ বিচ্যুতি হয়ে থাকে বা ক্ষতি হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে তাকে এক লক্ষ টাকা পর্যন্ত ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়ে থাকে ।

এই কার্ডের জন্য আপনারা খুব সহজেই অনলাইনে আবেদন করতে পারেন। এর জন্য আপনাদের প্রয়োজন হবে আধার কার্ড, মোবাইল নম্বর এবং ব্যাংকের বই।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button