দারুন ইউনিক এই ব্যবসা শুরু করে মাসে মোটা টাকা রোজগার করুন! 50% ভর্তুকি পাবেন সরকার থেকে! জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন:-প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনের কাজ বা ব্যবসার সাথে যুক্ত হচ্ছে দেশে প্রায় লক্ষাধিক মানুষ। কিন্তু যে সমস্ত জিনিসের ব্যবসার কথা আমরা হয়তো কোনোদিন ভাবি নি সেই সমস্ত ব্যবসা করে কিন্তু কেউ কেউ কোটিপতি হয়ে গেছে সফলভাবে তাদের ব্যবসা কে দাঁড় করাতে পেরেছে ।করোনা পরিস্থিতিতে সমস্ত কিছুর আর্থিক অবস্থা রীতিমতো ভেঙে পড়েছে। এই অবস্থাতে দাঁড়িয়ে যদি আপনি ব্যবসা করা কথা ভেবে থাকেন তাহলে হতে পারে এই ব্যবসাটি আপনার জন্য সবথেকে উপকারী।

এই ব্যবসার নাম হচ্ছে পার্ল ফার্মিং অর্থাৎ যদি বাংলা ভাষায় মনটা বলা হয় তাহলে বলা যেতে পারে মুক্ত চাষ এবার হয়তো আপনি ভাবছেন যে মুক্ত চাষের জন্য উপযুক্ত জায়গা বা ব্যবস্থায় কিভাবে আপনি তৈরি করবেন? এত বিপুল পরিমাণ অর্থ কোথা থেকে সংগ্রহ করবেন। তবে চিন্তার কোন কারণ নেই । কারণ এক্ষেত্রে সরকার আপনাকে সাহায্য করবে ।

এই ব্যবসা শুরু করতে গেলে অতি অবশ্যই যে তিনটে জিনিস আপনার কাছে থাকা প্রয়োজন সেগুলি হল
পুকুর, সিপ এবং ট্রেনিং । যদি নিজে পুকুর খনন করান তাহলে সরকার আপনাকে 50 শতাংশ ভর্তুকি দিবে৷ এটা একটা বড় সাহায্য৷ সিপ ভারতের বিভিন্ন প্রান্তেই পাওয়া যায়৷ দক্ষিণ ভারত ও বিহারের দ্বারভাঙায় সিপের গুণগত মান বেশ ভালো৷ মুক্তো চাষের জন্যেও দেশের বিভিন্ন জায়গায় ভালো ট্রেনিং হয়৷ মধ্যপ্রদেশের হোশঙ্গাবাদ ও মুম্বইতে এই ট্রেনিং ভালো হয়৷

এবার হয়ত প্রাথমিকভাবে আপনার মনে হতেই পারে যে মুক্ত কিভাবে তৈরি হবে এবং সেই মুক্তো কে কত টাকা তে আপনি বাজারে বিক্রি করতে পারবেন জেনে নিন সেই সমস্ত তথ্য গুলি একনজরে। সবচেয়ে প্রথমে জাল বেঁধে 10- 15 দিনের জন্য পুকুরে রেখে দিতে হয়৷ যাতে মুক্তো চাষের জন্য উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি করা যায়৷ তারপর সেগুলি বার করে অস্ত্রোপচার করা হয়৷ সার্জারি অর্থাৎ সিপের মধ্যে একটি পার্টিকেল ঢুকিয়ে দেওয়া হয়৷

এরপর কাটিংয়ের পর সিপ লেয়ার তৈরি হয়৷ যেটা পরে মুক্তোয় পরিণত হয়। সূত্র অনুসারে এমনটা জানা যাচ্ছে যে আপনাকে এক্ষেত্রে 25 থেকে 30 হাজার টাকা বিনিয়োগ করতে হবে ।একটি সিপ থেকে দুইটি মুক্ত তৈরি হয় এবং একটি মুক্ত 120 টাকা দিয়ে বাজারে বিক্রি করা সম্ভব ।যদি গুণগত মান ভালো থাকে তাহলে সে ক্ষেত্রে আপনি 200 টাকা তেও বিক্রি করতে পারেন।এক একর পুকুরে যদি 25 হাজার সিপ ছাড়েন তাহলে 8 লক্ষ টাকা খরচ হয়৷ 50 শতাংশের বেশি সিপ ভালোভাবে বেরোয়৷ সেক্ষেত্রে বছরে 30 লক্ষ টাকা রোজগার সুনিশ্চিত।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button