আজ থেকে চালু হচ্ছে রাজ্য সরকারের ‘দুয়ারে রেশন’ প্রকল্প! কোন কোন অঞ্চলে আগে শুরু হবে এই সুবিধা? জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- এবার পুনরায় দুয়ারের রেশন প্রকল্প নিয়ে সৃষ্টি হলো জটলা । আমরা জানি যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় দুয়ারে রেশন প্রকল্প শুরু হওয়ার কথা ছিল ভাই ফোটার পরদিন থেকে । কিন্তু তার আগে রাজ্য সরকার ট্রায়াল’ হিসেবে বেশ কয়েকটি দোকান নিয়ে অর্থাৎ রেশন দোকান নিয়ে এটি শুরু করেছে । পরিস্থিতি কেমন মানুষের উত্তেজনা কেমন কিভাবে কতটা সাড়া পাওয়া যাচ্ছে সবকিছু খতিয়ে দেখার চেষ্টা করছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার ।

গত বুধবার থেকে শুরু হয়ে গেছে সেটি । কিন্তু এবার কিন্তু এখানেও ঘটে গেছে বি-পত্তি । খাদ্য দপ্তরে ও পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের তরফ থেকে বিভিন্ন রেশন ডিলার দের কি এমনটা নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল যে দুয়ারে রেশন প্রকল্প চালু করার জন্য অতি অবশ্যই তাদেরকে একটি গাড়ি কিনতে হবে । এই গাড়ি কেনার প্রাথমিক অনুদান হিসেবে এক লক্ষ টাকা করে সরকার তাদেরকে দেবে । বাকি টাকা তাদের নিজের ব্যবস্থা করতে হবে ।

কিন্তু এই সিদ্ধান্তে রীতিমত খুশি নয় তারা । যার ফলে তারা বি-ক্ষোভ করেছে এবং এর প্র-তিবাদ করেছে বিভিন্ন সময় । তবে সবকিছুর ঊর্ধ্বে গিয়ে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার শুরু করেছে এর ট্রায়াল । মোটামুটি ৩০০০ রেশন দোকান নিয়ে বেশ কয়েকটি অঞ্চলের শুরু করেছে এই প্রকল্প ।বুধবার থেকে দুয়ারে রেশন প্রকল্পের ট্রায়াল শুরু হওয়ার কথা ছিল রাজ্যের ১৫% রেশন ডিলারের এলাকা নিয়ে । কিন্তু এই বিষয়ে “অল ইন্ডিয়া ফেয়ার প্রাইস শপ ডিলার্স”

এর দুজন সদস্য জটিলতা সৃষ্টি করেছেন। তারা এই ট্রায়ালের বিপক্ষে মত প্রকাশ করেছেন এবং বিষয়টিকে আদালতের দ্বারস্থ করেছেন। এই প্রসঙ্গে “অল ইন্ডিয়া ফেয়ার প্রাইস শপ ডিলার্স” এর সাধারণ সম্পাদক বিশ্বম্ভর বসু জানান ” মুখ্যমন্ত্রী যে প্রকল্পই শুরু করেন তা ধারাবাহিক ভাবে চালিয়ে যান। এক্ষেত্রে আমাদের বক্তব্য , পরিকাঠামো তৈরি করে প্রকল্প শুরু করা হোক। আমরা আমাদের তিনটি দাবীও জানিয়েছি লিখিতভাবে।

খাদ্য দফতর ট্রায়াল শুরু করছে ঠিকই, তবে বেশিরভাগ রেশন ডিলারই নিজের দাবীর স্বপক্ষে অনড়।”তবে খাদ্যমন্ত্রী রথীন রায় জানিয়েছেন যে আদালতে রায় দেওয়ার কথা হলেও এখনও পর্যন্ত সেই রায় দিয়ে উঠতে পারেনি আদালত । তার পাশাপাশি তিন হাজারের কিছু বেশি দোকান থেকে ট্রায়াল হবে। বাড়ি বাড়ি যাবেন রেশন ডিলাররা। দুজন মামলা করেছেন, সরকারতো করেননি, তাই ট্রায়াল হচ্ছেই। মূল অংশ শুরু হতে দেরী আছে। তার মধ্যে ডিলারদের সঙ্গে তাদের দাবি নিয়ে আলোচনা চলবে। আমরা আপাতত দেখে নিতে চাই পরিস্থিতি কেমন।” ।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button