প্রথমবারের জন্য ভাইফোঁটা দিলেন রানু মন্ডল! দিলেন উপহার! মুহূর্তে ভাইরাল হল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- ভাইফোঁটা হচ্ছে এমন একটা পবিত্র দিন যেখানে দেশের প্রায় প্রতিটি দিদি মা বোনেরা তাদের ভাইয়ের মঙ্গল কামনা করে। বিশেষ এই দিনকে স্মরণীয় করে রাখতে চাই প্রত্যেকেই। কিন্তু সেই তালিকা থেকে হয়তো আমাদের আশেপাশে থাকা এমন বহু মানুষ রয়েছে যারা বাদ পড়ে যায়। মানুষ হিসেবে তাদের কেউ সেই তালিকাটা অন্তর্ভুক্ত করা আমাদের নৈতিক কর্তব্য। সেই কর্তব্য নিষ্ঠা ভরে পালন করেছেন এই ইউটিউবার।

জনপ্রিয় গায়িকা রানু মন্ডল এর সাথে ভাইফোঁটার দিন উদযাপন করলেন এই ইউটিউবার। জীবনের অন্যতম শ্রেষ্ঠ দিনগুলিতে রানু মন্ডল কে পাশে রাখার চেষ্টা করেছেন তিনি। রানাঘাট স্টেশন চত্বরে এক পেয়ার কা নাগমা হে গান গেয়ে মুম্বাইয়ে পাড়ি দেওয়া মোটেও সহজ ব্যাপার ছিল না। কিন্তু ভাগ্যচক্রে তিনি পৌঁছে গিয়েছিলেন মুম্বাইয়ের নামিদামি স্টুডিওতে। মূলত হিমেশ রেশমিয়া দৌলতের যাত্রা করতে পেরেছিলেন কিন্তু হঠাৎ করে তার শরীরের মধ্যে অহংকার বিপুল পরিমাণে।

যার জন্য মানুষের সাথে দুর্ব্যবহার করতে শুরু করে রানু মন্ডল এবং এর ফলে মানুষ তার থেকে মুখ ফিরিয়ে নিতে বাধ্য হয় যার ফলে তাকে ফিরে যেতে হয় আবার আগের অবস্থায়। শুধুমাত্র কিছু ভিউজ এবং লাইক পাবার জন্য অনেকে রানু মণ্ডলের বাড়িতে যায়। তার সাথে গল্প করে এবং সাক্ষাৎকারের পর সেখান থেকে চলে আসে ।তারপর আর ফিরেও তাকায় না তার দিকে ।কিন্তু রন্ধন পরিচয় নামক একটি ইউটিউব চ্যানেল রয়েছে।

সেই ইউটিউবে চ্যানেল থেকে একাধিকবার রানু মণ্ডলের বাড়িতে যাওয়া হয়েছে বিভিন্ন সাহায্য নিয়ে ।লকডাউন এর সময় আমরা দেখেছিলাম বিভিন্ন জিনিসপত্র তার হাতে তুলে দিয়েছে। খাবার সামগ্রী থেকে শুরু করে আরো অন্যান্য কিছু পাশাপাশি রান্না করে রানু মন্ডল কে খাইয়ে দিয়ে এসেছিল সেই ইউটিউবার। তবে ভাইফোঁটা উপলক্ষে একেবারের জন্য ভুলে যাইনি সেই ইউটিউবার রানু মন্ডল কে।

তার জন্য বিশেষ কিছু উপহার নিয়ে গিয়েছিল পাশাপাশি এর তার কাছ থেকে কাছ থেকে ভাইফোঁটা নিলেন সেই ইউটিউবার। পাশাপাশি রানু মন্ডল এর হাতে তুলে দিলেন একটি সুন্দর ব্যাগ রানু মন্ডল নিজের মুখে জানিয়েছেন যে সেখানে তিনি টাকা রাখবেন বা দরকারি যে সমস্ত কাগজপত্র গুলো রয়েছে সেগুলি রাখবেন এক থানা মিষ্টি সাজিয়ে ভাইকে ভাইফোঁটা দিল রানু মন্ডল। ইতিমধ্যে মারাত্মক পরিমাণের ভাইরাল হয়েছে ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়াতে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button