শীত পড়তে না পড়তেই বৃষ্টি! রাজ্যের এই এই জেলায় বাড়বে বৃষ্টির দাপট! জারি হল কমলা সতর্কতা।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- বেলা যত বাড়বে ততোই বাড়বে বৃষ্টির পরিমাণ। এমনটা জানালো আবহাওয়া দপ্তর ।বন্যার এখনো পর্যন্ত কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই পুনরায় আরো একবার ভারী বৃষ্টিপাতে সম্মুখিন হচ্ছে কেরালা। ইতিমধ্যে বঙ্গোপসাগরের উপর যে ঘূর্ণবাত বা নিম্নচাপের সৃষ্টি হয়েছে তার জেরে তামিলনাড়ু ভিজছে বৃষ্টিতে। তবে ধীরে ধীরে নিম্নচাপ স্থলভাগের আছড়ে পড়ার সাথে সাথে এর শক্তি বৃদ্ধি ঘটবে।

যার ফলে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাত হবে বেশ দক্ষিণী রাজ্যের কয়েকটি জেলাগুলিতে। আটটি জেলায় অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকায় কমলা সতর্কতা ও জারি করা হয়েছে।বৃহস্পতিবার সেই নিম্নচাপ তামিলনাড়ু ও অন্ধ্র উপকূল দিয়ে স্থলভাগে প্রবেশ করবে। আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, পাথানিমিত্তা, কোট্টায়াম, ইদুক্কি, পালাক্কাড, মালাপ্পুরম, কোঝিকোড়, ওয়েনাড ও কন্নুরে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে, তাই এই জেলাগুলিতে কমলা সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

অন্যদিকে, তিরুবনন্তপুরম, কোল্লাম, আলাপ্পুজ়া, এর্নাকুনাম, ত্রিশূর ও কাসারাগড়ে হলুদ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। ইতিমধ্যে মৎস্যজীবীদের কে সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে কারণ এই কয়েকদিনের সমুদ্র উত্তাল থাকবে আমরা দেখেছিলাম কেরলে বর্ষা বিদায় নেওয়ার সময় কিন্তু ভারী বৃষ্টিপাত হয়েছিল পাহাড়ি এলাকা তে ধস নেমেছে এমনকি 42 জনের মৃ-ত্যু হয়েছিল ও 6 জন নিখোঁজ ছিল।

পুনরায় সেই অবস্থা ফিরে আসতে চলেছে বলে অনুমান আবহাওয়াবিদদের। বৃষ্টিপাতের সাথে সাথে বজ্রপাত ও ঝড়ের সম্ভাবনাও রয়েছে। আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানানো হয়েছে, বৃষ্টিপাতের সময় কেরলের উপকূলে বায়ুর গতিবেগ থাকবে ৪০ থেকে ৫০ কিমি প্রতি ঘণ্টা। পার্বত্য এলাকাগুলিতে যারা থাকেন, তাদেরও সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে, কারণ অতিরিক্ত বৃষ্টির জেরে সেখানে ভূমিধস নামতে পারে।

ইতিমধ্যেই উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে মাইকিং করে সতর্ক করার কাজও শুরু করা হয়েছে।কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানানো হয়েছে, আজ বিকেলে তামিলনাড়ুর উত্তর অংশ এবং অন্ধ্র প্রদেশের (Andhra Pradesh) দক্ষিণ উপকূল দিয়ে কাড়াইকাল ও শ্রীহরিকোটার পথ ধরে নিম্নচাপটি সরতে থাকবে। ধীরে ধীরে তা পুদুচেরীর উত্তর অংশের দিকে এগোবে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button