একদম কম খরচে পুরী,তিরুপতি সহ আরো তিনটি তীর্থস্থান ভ্রমণ! বাংলার তীর্থযাত্রীদের জন্য নতুন ট্রেন চালু করল রেল! জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :-দীর্ঘদিন ধরে করোনা পরিস্থিতির জন্য পর্যটন কেন্দ্র গুলি ধুঁকছে। প্রায় বন্ধের মুখে। পুনরায় সেগুলিকে চাঙ্গা করতে এবং ভ্রমণ পিপাসু মানুষদের কে সুযোগ-সুবিধা করে দেওয়ার জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে ইন্ডিয়ান রেলওয়ে ক্যাটারিং অ্যান্ড ট্যুরিজম কর্পোরেশন বা আইআরসিটিসি।

এই সংস্থা আগেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল দু’রকম খরচে তীর্থযাত্রীদের জন্য প্যাকেজ বানানো হবে।এবার তাদের সিদ্ধান্ত কে বাস্তবায়িত করল তারা ।মূলত বাংলার যাত্রীদের কথা ভেবেই এই ভ্রমণসূচি বানানো হয়েছে। কোন কোন স্টেশন থেকে যাত্রীদের ট্রেনে তোলা হবে তা ঘোষণার মধ্য দিয়েই এটা স্পষ্ট করা হয়েছে যে, এই ভ্রমণ বাংলার তীর্থযাত্রীদের আকৃষ্ট করার জন্য।

আগেই সংস্থা ঠিক করেছিল, দু’রকম খরচে তীর্থযাত্রীদের জন্য প্যাকেজ বানানো হবে। সাধারণ শ্রেণিতে দৈনিক মাথা পিছু খরচ হবে ৯০০ টাকা আর বিশেষ কিছু সুবিধা নিলে দৈনিক মাথাপিছু ১,৫০০ টাকা।আগামী ১৬ ই জানুয়ারি থেকে ট্রেনে চেপে ১১ দিন দক্ষিণ ভারতের বিভিন্ন জায়গা ঘুরে দেখতে পারেন। যারা ধর্মশালা থাকবেন তাদের জন্য খরচ পড়বে প্রায় ১১ হাজার টাকার কাছাকাছি এবং যারা হতে থাকবেন তাদের জন্য খরচ পড়বে ওই ১৮ হাজার টাকার কাছাকাছি।

বাংলার পাকুর, রামপুরহাট, বোলপুর, বর্ধমান, ডানকুনি, আন্দুল, মেচেদা এবং খড়্গপুর স্টেশন থেকে যাত্রীরা ট্রেন উঠতে পারবেন। নিয়ে যাওয়া হবে তিরুপতি, মাদুরাই, রামেশ্বরম, কন্যাকুমারী এবং পুরী।এ প্রসঙ্গে আইআরসিটিসি-র গ্রুপ জেনারেল ম্যানেজার দেবাশিস চন্দ্র বলেন, ‘‘করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় নতুন করে পর্যটনশিল্প ঘুরে দাঁড়াচ্ছে।

আমরাও আমাদের প্রকল্পগুলি শুরু করেছি। কম পয়সায় মানুষ আমাদের সঙ্গে ঘুরতে যেতে পারেন। এতে যেমন পর্যটন শিল্পের উন্নতি, তেমন প্রচুর মানুষের কর্মসংস্থানও হবে। ভবিষ্যতে এমন প্রকল্পের সংখ্যা আরও বাড়ানো হবে।’’এ খবর পেয়ে রীতিমতো ভ্রমণ পিপাসু মানুষদের মুখে হাসি ফুটেছে। সে ব্যাপারে নতুন করে বলার আর কোন অপেক্ষা রাখে না।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button