“তুম হি হো” গানে প্রোপোজ, তারাপীঠে বিয়ে, অরিজিতের প্রেমকাহিনি হার মানায় সিনেমার গল্পকেও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-২০০৫ সালে তার সংগীত জগতে প্রথম যাত্রা শুরু হয় একটি রিয়েলিটি শো এর মাধ্যমে । কিন্তু সেখানে জেতা দূরের কথা বরং ফাইনাল অবধি পৌঁছাতে পারেনি সে । ষষ্ঠ স্থান থেকে তাকে মঞ্চ ছাড়তে হয়েছিল । একরাশ ব্যথা বেদনা নিয়ে বাড়ি ফিরে ছিলেন তিনি । তবে হাল ছাড়েননি চলেছে পরিশ্রম অবশেষে ২০১০-২০১১ সালে সঙ্গীত পরিচালক প্রিতমের সাথে কাজ শুরু করেন তিনি । এবং মার্ডার টু সিনেমা একটি জনপ্রিয় গানের ভার্সন তিনি গেয়েছেন। তাতেও মেলেনি সাফল্য । অবশেষে আশিকি টু এর তুম হি হো নামক গানটি জীবন পাল্টে দিয়েছে । সৃষ্টি করেছে ইতিহাস ।

সেই সঙ্গীত জগতের এক জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী হলেন অরিজিৎ সিং । মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জ এলাকায় জন্মগ্রহণ করেন তিনি এবং সেখানেই তিনি বেড়ে ওঠেন । তারপরে তার স্বপ্ন পূরণের তাগিদে একের পর এক ধাপ অনায়াসে তিনি বেরিয়ে যান এবং হয়ে ওঠেন ভারতের সবথেকে খ্যাতনামা জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী বা গায়ক ।

সাফল্যের শিখরে পৌঁছে বিন্দুমাত্র অহংকার জন্ম দেয়নি তার শরীরে । কিন্তু তার বাস্তব জীবনের সম্পর্কে এখনও অনেকেই অবগত নয় যখন তিনি গ্রুপগুলো গান গাইতেন তখন সেই রিয়েলিটি শোতে প্রতিযোগী রূপরেখা সাথে তার পরিচয় হয় । এবং পরবর্তী ক্ষেত্রে তাকে তিনি বিয়ে করেন ।কিন্তু মনোমালিন্যের জের এসম্পর্কে বেশিদিন টেকেনি । তারপর তিনি পুনরায় বিবাহ করেন এমন একজনকে যিনি তার ছোটবেলা থেকেই ভালোবাসার মানুষ ছিলেন।

স্কুল জীবন থেকে অরিজিৎ সিংয়ের কোয়েল নামক এক যুবতীকে ভালো লাগতো কিন্তু সময়ের সাথে সাথে তাকে আর কাছে পাওয়া হয়নি । তাই রূপরেখা সাথে জীবন শুরু করেছিলেন তিনি । কিন্তু রূপের সাথে ডিভোর্স হবার পর তার জীবনে যে মেয়েটি এসেছিল সে আর অন্য কেউ নয় বরং সেই স্কুল লাইফের ভালোবাসার মানুষ কোয়েল । যদিও তখন তার ডিভোর্স হয়ে গেছে অর্থাৎ কোয়েল ডিভোর্সি । তার একটি ছোট্ট সন্তানও রয়েছে এবং অরিজিৎ সিং এর একটি ছেলে এবং একটি মেয়ে রয়েছে । তিন জনকে নিয়ে সুখের সংসার এখন তার এই ঘটনা অনেক অনুরাগীদের মধ্যে জানা নেই ।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button