জঙ্গলে শজারু কে আ-ক্রম-ণ করতে গিয়ে চরম বিপদের মুখে বি-ষা-ক্ত কোব-রা সাপ! তুমুল ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- মানুষ হোক বা অন্য কোন পশুপাখি জন্তু-জানোয়ার প্রত্যেকে কিন্তু জীবন যু-দ্ধে টিকে থাকার জন্য একে অপরের সাথে ল-ড়াই করে চলেছে। এই ল-ড়াইয়ে যারা হেরে যাচ্ছে তাদের অস্তিত্ব চিরকালের জন্য বিলীন হয়ে যাচ্ছে পৃথিবীর বুক থেকে। এবং যারা জয় লাভ করছে তারা পরবর্তী প্রজন্মের জন্য অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে পারছে। এই ল-ড়াইয়ে দৃশ্য অত্যন্ত ম-র্মান্তিক এবং বে-দনা-দায়ক হয়ে ওঠে মাঝেমধ্যে যেমনটা হলো এই বার।

সম্প্রতি বিগত কয়েক বছর ধরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন মানুষকে নিজের প্রতিভার বিকাশ ঘটানোর চেষ্টায় দেখা যাচ্ছে। কখনো বা নাচ গান,আবৃত্তি,কবিতা আবার কখনো বা নিজের কোন রান্না সব কিছু নিয়েই মানুষ হাজির হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ব্যবহারকারীর সংখ্যা বৃদ্ধির সাথে সাথে এইসব সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা মানুষের সংখ্যাও বেড়ে চলেছে।বর্তমানে ইন্টারনেট জগত গণমাধ্যম এর চেয়েও বেশি শক্তিশালী হয়ে উঠেছে বিশেষজ্ঞদের মতে।

কারণ মুহূর্তের মধ্যেই মুঠো ফোনের সাহায্যে বিভিন্ন ফটো বা ভিডিও ভাইরাল হয়ে চলেছে সারা দুনিয়া জুড়ে। শুধুমাত্র তাই নয় যোগাযোগের দূরত্ব ক্রমশ ছোট হয়ে গেছে এর সাহায্যে। আর এর পেছনে আরেকটি প্রধান কারণ হচ্ছে স্মার্টফোনের সহজলভ্যতা। বাচ্চা হোক কিংবা বয়স্ক সবার কাছেই স্মার্ট ফোন সহজলভ্য। ফলস্বরূপ প্রায় সকলেই ইন্টারনেটের সুবিধা ভোগ করছেন। সম্প্রতি ফেসবুকে একটি ভিডিও যথেষ্ট পরিমাণে ভাইরাল হয়েছে।

সেখানে দেখা যাচ্ছে একটি জঙ্গলে মধ্যে লুকিয়ে ছিল সজারু এবং সেটিকে আ-ক্রমণ করতে যায় একটি বড় আকারের সাপ। কিন্তু সজারু টি এতটাই ভ-য়ঙ্কর এবং খ-তরনাক ছিল যে অবশেষে সাপটি নিজের বি-পদ নিজেই ডেকে আনল। রীতিমতো নাজেহাল অবস্থা হয়ে পড়লো সেই সাপের। ভিডিওর একদম শেষ প্রান্তে গেলে আপনি দেখতে পাবেন যে হয়তো সজারু টি নিজেকে সা-পের ক-বল থেকে মুক্ত করতে পেরেছে কিন্তু সাপের গোটা গায়ে বিধে গেছে সজারুর কাঁটা।

যার ফলে তীব্র য-ন্ত্রণায় ছ-টফট করছে সেই সাপটি। ব্যাপক পরিমাণে ভাইরাল হয়েছে সেই ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্লাটফর্মে। তার পাশাপাশি এসেছে সেই ভিডিও কে ঘিরে চা-ঞ্চল্য এই ধরনের ঘটনা আমরা খুব বিরল দেখতে পায়। তাই এই ধরনের ঘটনা আমাদের কাছে চির স্মরণীয় হয়ে থাকে এবং কৌতুহলী হয়ে থাকে। তাই সেই মতো সেই ভিডিওকে ঘিরে এসেছে বিভিন্ন কৌতুহলিক মন্তব্য। মিনিটে মিনিটে বেড়েছে শেয়ারের সংখ্যা।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button