যে চার মানুষ ভুলেও কখনো বেদানা খাবেন না, শেষ হয়ে যাবে জীবন!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-সাধারণত আমাদের দৈনন্দিন জীবনে এমন বেশ কিছু উপাদান থেকে তাকে যেগুলি আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে । তার পাশাপাশি আমাদের শরীরকে করে তুলবে সুস্থ স্বাভাবিক একাধিক রোগ নিরাময়ে সেই সমস্ত জিনিসের অবদান অনস্বীকার্য। কিন্তু আমরা হয়তো তাদের গুণ জানিনা ।তাই তাদের সঠিকভাবে ব্যবহার করতে পারিনা। আজকের প্রতিবেদন তার জন্য । আজকের এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে আমি আপনাদের জানাতে চলেছি বেদনা কাদের খাওয়া উচিত নয় ।

বিভিন্ন কারণে আমাদের শরীর দুর্বল হয়ে পড়ে এবং সেই দুর্বলতাকে কাটিয়ে উঠতে ডাক্তারবাবুরা অনেক সময় বেদানা খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকে । যেহেতু বেদানা খেলে রক্ত প্রবাহ আবার পুনরায় সঠিকভাবে হয়ে থাকে তাই এটি খাবার পরামর্শ দিয়ে থাকেন অধিকাংশ ডাক্তার । কিন্তু কাদের বেদানা খাওয়া উচিত না সেটা হয়তো অনেকেই জানেন না । যার ফলে বি-প-দ ঘনিয়ে আসে ।এমনকি প্রাণ সংশয় হতে পারে ।

বেদানা খেলে উচ্চ রক্তচাপ জনিত সমস্যা সমাধান হয়ে যায় অর্থাৎ উচ্চ রক্তচাপ বিশিষ্ট রোগীর সঠিক মাত্রায় র-ক্তচা-প পেয়ে থাকেন কিন্তু যাদের রক্ত চাপ কম রয়েছে অর্থাৎ যাদের ব্লাড প্রেসার কম তারা যদি কোনো কারণে বেদানা খাই প্রতিনিয়ত তাহলে কিন্তু তাকে আরো গভীরভাবে ভিতরে থেকে কমজোরি করে দেবে যার ফলে প্রা-ণ-নাশক হতে পারে ।

সাধারণত যাদের সর্দির দাঁত থাকে অর্থাৎ যাদের অল্পতে সর্দি লেগে যায় তাদের কখনো বেদনা খাওয়া উচিত নয়। কারণ বেদনা হচ্ছে ঠান্ডা জাতীয় ফল। গ্রীষ্মকালের ব্যবহার বেশি পাওয়া যায় কিন্তু তবুও তাদের অল্পতে সর্দি হয়েছে তাদের বেদনা থেকে দূরে থাকা উচিত।

যারা মানসিক অবসাদের জন্য ওষুধ গ্রহণ করেন অর্থাৎ ডিপ্রেশনের জন্য ওষুধ খান তাদের ক্ষেত্রে কিন্তু বেদেনা একদম বিষের সমান ।কাজে ই তারা বেদানা খাওয়া থেকে বিরত থাকুন।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button