নিজের অঙ্গ নিয়ে মজায় মা-ত’ল হনুমান, হাসির ভিডিও তু’মু-ল ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়!

নিজস্ব প্রতিবেদন:সোশ্যাল মিডিয়া মানে আধুনিক যুগের অন্যতম এক যোগাযোগ ব্যবস্থা। বর্তমানকালের সোশ্যাল মিডিয়াকে টিভি,নিউজ পেপারের মতোনই শক্তিশালী বলে ধরা হয়।যে কোন খবর দ্রুত ছড়িয়ে যায় অনলাইন নিউজ পোর্টাল গুলিতে। সারাদিনের ব্যস্ততার ফাঁকে এক নজরেই সাধারণ মানুষ চোখ রাখেন সেই সব খবর গুলিতে। যুগের পরিবর্তনের সাথে সাথে এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম আরো উন্নততর হচ্ছে।

আগে শুধুমাত্র এই অনলাইন যোগাযোগ ইমেইল এর মাধ্যমে সীমাবদ্ধ ছিল।কিন্তু স্মার্টফোন এবং ইন্টারনেটের সহজলভ্যতা সাথে সাথেই এখন বিভিন্ন চ্যাটিং অ্যাপ্লিকেশন বাজারে এসেছে। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম প্রভৃতি।ঘুম থেকে উঠে হোক বা ঘুমাতে যাওয়ার আগে মানুষ এখন এই সোশ্যাল মিডিয়াতে সময় কাটাতে বেশি ভালোবাসেন।তবে এই সোশ্যাল মিডিয়ার যেমন কিছু সুবিধা আছে, তেমনি রয়েছে কিছু নেতিবাচক দিক ও।

এটির মধ্যে প্রথমেই বলা যায় ছাত্র-ছাত্রীরা বিশেষত টিনেজার ছাত্রছাত্রীরা সোশ্যাল মিডিয়াতে অতিরিক্ত সময় ব্যয় করার ফলে মানসিকভাবে স্থিরবুদ্ধি হয়ে পড়ছে।আর সাধারণ মানুষের মধ্যেও অনেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় এতটাই সময় ব্যয় করছেন যে আশেপাশের আপনজনকেও ঠিকভাবে সময় দিতে পারছেন না বা জীবনের আনন্দ সঠিক ভাবে উপভোগ করতে পারছেন না।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি হাসির ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যা দেখে যে কোন মানুষ মন খারাপ থাকলেও হাসতে বাধ্য হবেন। ভাইরাল এই ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, একটি জঙ্গলাকীর্ণ জায়গায় কতগুলি হনুমান বসে রয়েছে।এমতাবস্থায় একব্যক্তি সেখানে উপস্থিত হয়ে অনেকটা মজার ছলেই তাদের গায়ে লেজার লাইট দিতে থাকেন।তাদের শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ প্রত্যঙ্গের ওপর লেজার লাইট ছড়িয়ে দিতে থাকেন ঐ ব্যাক্তি।

প্রথমে ব্যাপারটা বুঝতে না পেরে হনুমান গুলি অবাক হয়ে যায়। যার ফলস্বরুপ বারংবার তারা নিজেদের শরীরের অঙ্গের দিকে তাকিয়ে থাকে। এমতাবস্থায় শেষ পর্যন্ত এভাবে বেশ কিছুক্ষন চলার পর ঐ ব্যাক্তি লাইটটি মাটি এবং গাছের ওপরে ঘোরাতে থাকেন। এবারে ওই হনুমানেরা লাইটটিকে ধরার জন্য গাছের ওপরে চড়তে থাকে। এই ভিডিওটি দেখে সকলে অবাক হয়ে গিয়েছে। ভিডিওতে হনুমানদের উপর এই প্রাঙ্ক নেটিজেনদের অনেকেই পছন্দ করেছেন। তার ফলস্বরূপ মাত্র কয়েক দিনের মধ্যেই ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। মজাদার এই ভিডিওটি চাইলে আপনারাও দেখে আসতে পারেন।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button