সারেগামাপা -র মঞ্চে অসাধারণ হিন্দি গান গেয়ে সকলকে মুগ্ধ করলেন ছোট্ট অরুনীতা! এইটুকু বয়সেও কি দারুন গলা!

সারেগামাপা -র মঞ্চে অসাধারণ হিন্দি গান গেয়ে সকলকে মুগ্ধ করলেন ছোট্ট অরুনীতা! এইটুকু বয়সেও কি দারুন গলা!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- এই বাংলার মানুষ তাকে নিয়ে এখন গর্ববোধ করে বরং স্বপ্ন দেখে আগামী দিনে যাতে বাংলার মুখ উজ্জ্বল করতে পারে বিশ্বদরবারে। কারণ তিনি শুধুমাত্র তার কণ্ঠস্বর দিয়ে কাঁপিয়ে এসেছে গোটা বলিউড মিউজিক ইন্ডাস্ট্রিকে। একের পর এক দুর্ধর্ষ হিন্দি গান করে রীতিমতো জয় করে নিয়েছেন লক্ষ লক্ষ দর্শকের মন। খুব অল্পসময়ের মধ্যেই হয়ে উঠেছেন নেটদুনিয়ার হট সেন্সেশন। বিজয়ী না হতে পারলেও ছিনিয়ে নিয়েছে কয়েক লক্ষ মানুষের ভালোবাসা। এবং বিশ্বাস ম ঠিক ধরেছেন আমি এই মুহূর্তে বনগাঁর মেয়ে অরুনিতা কাঞ্জিলালের কথা বলতে চলেছি।

সম্প্রতি একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে ইউটিউবে যা দেখে আপনি এমন টা বলতেই পারেন যে অরুনিতা খুব ছোটবেলা থেকেই গানের অনুরাগী এবং ছোটবেলা থেকেই বাংলার সারেগামাপাতে এক জনপ্রিয় প্রতিযোগী ছিলেন। তখন হয়তো তাকে তেমন ভাবে কেউ চিনত না। কিন্তু এখন জনপ্রিয়তা পাবার পর তার পুরনো দিনের ভিডিওগুলি ক্রমশ প্রকাশ্য উঠে আসছে। পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁর বাসিন্দা হল অরুনিতা কাঞ্জিলাল।

যার নাম এখন গোটা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে মূলত ইন্ডিয়ান আইডলের জন্য । এবছরের ইন্ডিয়ান আইডল সিজন পুরস্কার ছিনিয়ে নিতে না পারলেও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেছেন তিনি। বেড়েছে তার সাথে জনপ্রিয়তা। বাঙালি হয়ে শুধু মাত্র গানের মাধ্যমে ও কণ্ঠস্বর দিয়ে বলিউডের মঞ্চ কাপানো সহজ নয় এমনটা মনে করছে অনেক। অরুনিতা-র। তাঁর বাবা অবনী ভূষণ কাঞ্জিলাল পেশায় একজন শিক্ষক। এছাড়া মা শ্রাবণী কাঞ্জিলাল ও দাদা অনীশ কাঞ্জিলালকে নিয়ে তাঁর পরিবার। মাত্র ৮ বছর বয়স থেকে গানে হাতে খড়ি অরুনিতার। তাঁর মায়ের গানের শখ ছিল প্রথম থেকেই।

সেই সূত্রেই শুরু অরুনিতার গান গাওয়া। অরুনিতার মামা হলেন পেশায় একজন সঙ্গীত শিক্ষক। তাঁর কাছেই ছোট থেকে গান শিখতে শুরু করেন অরুনিতা। বাংলা যেমন বিখ্যাত সঙ্গীত এর সেরা মঞ্চ হচ্ছে সারেগামাপা ঠিক তেমনি হিন্দিতে সংগীতের সেরা মঞ্চ ইন্ডিয়ান আইডল। ১১ টা সিজান পেরিয়ে অবশেষে ১২ নম্বর সিজনে এসে উপস্থিত হয়েছে সেটি। এবং এই সিজনে বিশেষ আকর্ষণ ছিল হিমাচল প্রদেশের গায়ক পবন দ্বীপ এবং বনগাঁর গায়িকা অরুনিতা। এমনটা শোনা যাচ্ছিল যে শুটিং সেটা নাকি তাদের মধ্যে একটা প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয়েছে।

যদিও তারা অফিশিয়ালি কোন কিছুই স্বীকার করেনি। তবে সম্প্রতি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে যেখান থেকে অরুনিতা এক বছর আগে কেমন ছিল তার একটা স্পষ্ট চিত্র ফুটে উঠেছে। আপনাদের হয়তো অনেকেই জানেন না যে উনি তার একটা নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেল আছে সে বছরের পর বছর ধরে অর্থ ছোটবেলা থেকেই গানের সাথে যুক্ত গান। তার অত্যন্ত পছন্দের জায়গা। তাই ছোটবেলা থেকেই মন দিয়ে গান-বাজনা শিখেছে অরুনিতা।

গত এক বছর আগে ওযে মানে না নামক একটি রবীন্দ্র সঙ্গীত গান গেয়ে ছিলেন তিনি মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়েছিল। ইতিমধ্যে তার ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব সংখ্যা প্রায় ৪ লাখ এর কাছাকাছি এবং আপনি জানলে অবাক হবেন এক বছরের মধ্যে এই গানটিতে দর্শক সংখ্যা ৩০ লক্ষ অতিক্রম করতে চলেছে। সম্প্রতি ভিডিও ইউটিউবে প্রকাশিত হয়েছে বলাবাহুল্য ভাইরাল হয়েছে সেখানে দেখা যাচ্ছে যে খুব ছোটবেলা থেকেই অরুনিতা গানের অনুরাগী ছিলেন এবং সারেগামাপা লিটল চ্যাম্প একজন দক্ষ প্রতিযোগী ছিলেন তিনি।

সেই সারেগামাপার মঞ্চে থাকাকালীন অবস্থায় তাঁর গাওয়া একটি গানের ক্লিপ তুলে ধরা হয়েছে সেই ভিডিওর মাধ্যমে। যদিও ভিডিওটি অনেক বছর আগে পুরনো কিন্তু ফের আরো একবার মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়াতে।ভিডিও দেখা যাচ্ছে ওর মিতাকে গায়ক শান মোনালি ঠাকুর এবং আলকা ইয়াগ্নিক এর সামনে জিয়া জায়ে গানটি অসম্ভব সুন্দর করে পরিবেশন করছেন। তার সুরেলা কন্ঠ শুনে রীতিমতো মন্ত্রমুগ্ধ বিচারকেরা। ইতিমধ্যে তার পুরনো ভিডিও দেখতে পেয়ে রীতিমতো বেজায় খুশি তার অনুরাগীরা।


Leave a Reply

Your email address will not be published.