রেল লাইনের অংশে বড় ফাটল, ট্রেন আসতেই ঘটলো বড় বি-প’ত্তি, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-আমরা প্রতিনিয়ত নতুন নতুন যানবাহনের দেখা পাচ্ছি আমাদের আশেপাশে । অবশ্য এমনটা হওয়া খুব স্বাভাবিক । কারণ যত সভ্যতার উন্নতি ঘটছে বিজ্ঞানের হাত ধরে ততোই বাড়ছে আধুনিক যন্ত্রপাতি ও যানবাহনের সংখ্যা । আগেকার যুগে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যেতে গেলে যে সমস্ত যানবাহনের পরিসেবা গ্রহণ করা হত তা অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ এবং সময় সাপেক্ষ ।

কিন্তু বর্তমানে যেহেতু আমরা উন্নত করেছি হয়েছি তাই সময় এখন হাতের মুঠোতেএক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যাতায়াতের জন্য সাধারণত আমরা ট্রেন ব্যবহার করে থাকি । কারণ ট্রেন অত্যন্ত সহজলভ্য এবং দামে অত্যন্ত কম যার ফলে সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারে মানুষেরা প্রথম তালিকায় পছন্দ করে থাকে ট্রেনকে । কিন্তু এ ট্রেনেও ঘটে যেতে পারে মা-রা-ত্ম-ক দুর্ঘ-ট-না এ ।মনকি চলে যেতে পারে আপনার প্রাণ ।

এই ঘটনা প্রমাণ আমরা বহুবার পেয়েছি এরকম ঘটনার । এরকম দুর্ঘ–ট-না এর আগে বহুবার ঘটেছে । প্রতিনিয়ত মানুষ সচেতন হচ্ছে ঠিক কথাই । কিন্তু কোনো ক্ষেত্রে যদি যান্ত্রিক ত্রুটি থেকে যায় সে ক্ষেত্রে মানুষের করণীয় কিছু থাকেনা ।সেরকমই একটি ঘটনা সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বিবরণ দিতে চলেছি আজকের এই প্রতিবেদনে ।

সম্প্রতি একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে ইউটিউবে ভিডিওতে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী এমনটা জানানো হচ্ছে যে ১০০ কিলোমিটার গতিবেগে চলতে থাকা একটি ট্রেন হঠাৎ করে যদি কোন লাইনচ্যুত অর্থাৎ ভাঙ্গা লাইনের উপর দিয়ে পারাপার করে তাহলে তার অবস্থা কি হতে পারে ।আপনি নিশ্চয়ই ভাবছেন যে ট্রেনটা সাথে সাথে লাইনচ্যুত হয়ে যাবে ।তার পাশাপাশি ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি এবং মৃত্যু ঘটতে পারে । কিন্তু তেমনটা একদমই হয়নি এবং যার জন্য এমনটা হয়নি তিনি হলেন ট্রেনের ড্রাইভার।

সেই ভিডিওতে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী কানপুর থেকে কাঠগোদাম নামক একটি এক্সপ্রেস ট্রেন ১০০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা তে ছুটে চলেছে । কিন্তু হঠাৎ করে রেল লাইনের মধ্যে ফাটল দেখা যায় । সেটি বুঝতে পারে ট্রেনের চালক । যার ফলে তিনি সাথে সাথে গতি কমিয়ে দেয় এবং অত্যন্ত ধীরগতিতে সেই যায়গা দিয়ে ট্রেনটিকে বের করে । যদি তিনি এমন টা বুঝতে না পেরে দ্রুত গতিতে তার ওপর দিয়ে ট্রেন চালিয়ে যেতে তাহলে কিন্তু অবশ্যই ট্রেনটি লাইনচ্যুত হয়ে যেত । তার এই বুদ্ধি সত্তাকে কুর্নিশ জানিয়েছেন এ দুনিয়ার মানুষেরা ।।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button