রাস্তার মধ্যেই বড় চিতাবাঘ আ-ক্র’মণ করলো যুবককে,শেষে কয়েকটি কুকুরের জন্য প্রাণে বাঁ-চলেন তিনি, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন:বর্তমান যুগের সবথেকে আকর্ষনীয় মাধ্যম হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বা সোশ্যাল মিডিয়া। এই সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রতিনিয়ত নানান ধরনের ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হতে দেখা যায়।প্রথমদিকে শুধুমাত্র তরুন ব্যাক্তিবর্গ সোশ্যাল মিডিয়ার প্রধান ব্যবহারকারী হিসেবে থাকলেও বর্তমান যুগে আট থেকে আশি সকল বয়সের মানুষেরাই সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে থাকেন। এখানে নানান ধরনের ফটো— ভিডিও দেখা যায়, নিজস্ব মতামত প্রকাশ করা যায়।এমনকি আজকাল অনেক অসহায় মানুষেরা সোশ্যাল মিডিয়াকে নিজেদের প্রতিভার বিকাশ ঘটানোর জন্য একটি উল্লেখযোগ্য প্লাটফর্ম হিসেবে ব্যবহার করছেন।

এই বিষয়ে আমরা রানু মন্ডল এর নাম নিতে পারি। রানাঘাট স্টেশন এর বাসিন্দা ছিলেন তিনি। বেশিরভাগ সময়ে ভিক্ষা করে দিন কাটত তাঁর। কিন্তু আচমকাই সোশ্যাল মিডিয়া তার জীবন বদলে দেয়।যদিও নিজের অহংকারের জেরে খুব শিঘ্রই পতন হয়েছিল রানু মন্ডলের।প্রসঙ্গত রানুর গান শুনে অতীন্দ্র চক্রবর্তী নামক এক ইঞ্জিনিয়ার যুবক তা সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল করে তোলেন। যার ফলস্বরুপ তৎকালীন সময়ে বলিউডের বেশ কয়েকটি গান গাওয়ার সুযোগ পান রানু।

জীবজন্তু সংক্রান্ত যেকোন ভিডিও ইন্টারনেটে খুব দ্রুত ভাইরাল হয়ে ওঠে। সম্প্রতি ইন্টারনেটে ভাইরাল একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে প্রকাশ্য রাস্তায় একটি চিতাবাঘ উঠে এসেছে। একজন ট্রাক ড্রাইভার যুবককে সেই চিতাটি হঠাৎ করেই আ-ক্র-মণ করে ফেলে। কিন্তু ড্রাইভার এর অপর সঙ্গীটি সাথে সাথে তাকে গাড়ির ভিতরে টেনে নেয়।

এরপর ওই চিতা বাঘটিকে আক্রমণ করার জন্য এগিয়ে আসে রাস্তায় থাকা একদল কুকুর। কুকুরদের সম্মিলিত আক্রমণে চিতাবাঘটি অনেকটাই নিস্তেজ হয়ে পড়ে।ভিডিওটি দেখে একথা স্পষ্ট বোঝা যায় একতাই সব থেকে বড় শক্তি, তা মানুষের ক্ষেত্রে হোক বা পশুপাখিদের ক্ষেত্রে। অসাধারণ এই ভিডিওটি চাইলে আপনারাও দেখে আসতে পারেন। রইলো ভিডিও।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button