তবে কি আবার বাতিল হতে চলেছে ২ হাজারের গোপাপি নোট? কি বলছে RBI? জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- ফের আরও একবার দুই হাজার টাকার জাল নোট নিয়ে বড়োসড়ো সিদ্ধান্ত ঘোষণা করতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। প্রায় বছর পাঁচেক আগে অর্থাৎ ২০১৬ তে সব থেকে আলোচ্য ও গুরুত্বপূর্ন বিষয় ছিল ‘নোটবন্ধী’। কেন্দ্রীয় সরকার তথা বলা বাহুল্য মোদি সরকার এর তত্বাবধানে এই নোটবন্ধী প্রক্রিয়া চালু হয় । বাজারে পুরোনো ৫০০ আর ১০০০ এর নোট মূলত বাতিল এর সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্রীয় সরকার।

কিন্তু তার সাথে প্রতিশ্রুতি দেয় যে খুব তাড়াতড়ি নতুন ভাবে আসবে ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট। কিন্তু প্রায় পাঁচ বছর পেরিয়ে গেলেও এখনো দেখা মেলেনি সেই নোটের। জাল নোট যাতে আর বাজারে না ছড়িয়ে পড়ে তার জন্য এরকম সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার তার পরিবর্তে আসে ২০০০ টাকার নোট। ঝাঁ চকচকে একদম রঙীন এই নোট বাজারে আসাতে জাল নোট আটকানো নিয়ে কিছুটা স্বস্তির নিঃস্বাস ফেলেছিলো সরকার।

কিন্তু তার ও আর উপায় রইলো না। বাজারে কমেছিল আসল নোটের সংখ্যা, বেড়েছিল নকল ২০০০ নোট। ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিস্টিক্যাল ইনস্টিটিউটের এক সমীক্ষায় বলা হয়েছে প্রতি বছর ৭০ কোটি টাকা মূল্যের জাল নোট বাজারে ঢুকছে। জাতীয় অপরাধ পরিসংখ্যান ব্যুরোর রিপোর্ট অনুযায়ী ২০২০ সালে ৯২.১৭ কোটা টাকা মূল্যের জাল নোট উদ্ধার হয়েছে। এই পরিমাণটা ২০১৯ সালে ছিল ২৫.৩৯ কোটি।

মূলত যেহেতু এই সমস্ত জালনোট গু-লির বেশিরভাগ অংশই ২০০০ টাকার বাজার থেকে এবার ২০০০ টাকার নোট তুলে নেওয়ার পরিকল্পনা করছে কেন্দ্রীয় সরকার ।এই ঘটনার কিছুটা হলেও আভাস পাওয়া গেছিল অর্থ মন্ত্রকের বিবৃতিতে।অর্থ মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর গত ১৫ মার্চ লোকসভায় জানান, গত দু’বছরে দু’হাজার টাকার নোট ছাপার কোনও বরাত দেওয়া হয়নি। নোট বাতিলের বছরে প্রায় ৩৫৪ কোটি দু’হাজারের নোট ছাপা হয়েছিল।

২০১৮ র মার্চে বাজারে ৩৩৬ কোটি দু’হাজারের নোট ছিল। ২০২১ এর গোড়ায় তা ২৪৯ কোটিতে নেমে এসেছে। এমনকি ব্যাংকের এটিএম গুলিতে এখনো ২০০০ টাকার নোট প্রদান করা হচ্ছে না। তাহলে কি মোটা অংকের লেনদেন যেখানে হচ্ছে সেখান থেকে প্রাপ্ত ২০০০ টাকা সরাসরি জমা পড়ে যাচ্ছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া তে যদিও এ ব্যাপারে স্পষ্ট কোনো তথ্য এখনো জানা যায়নি। তবে আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই ঝাঁ-চকচকে ২০০০ টাকার নোট বাজার থেকে সম্পূর্ণ রকম ভাবে যে উধাও হয়ে যাবে সে ব্যাপারে নিশ্চিত আপামর দেশবাসী।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button