মাঝ সমুদ্রে প্রবল শি’লাবৃষ্টি ও ঝড়ের ক-ব’লে প’ড়লো লোকভর্তি বড় লঞ্চ, ঘটলো বি-প’ত্তি, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন:সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বর্তমানে আমাদের জীবনের সাথে খুব সাধারণ জিনিস এর মতই জড়িত।প্রতিদিন ঘুম থেকে ওঠা থেকে শুরু করে ঘুমোতে যাওয়ার সময় পর্যন্ত ফোন ব্যবহার করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজেদের অস্তিত্ব না দেখালে যেন চলেই না।কাজের ফাঁকে হোক বা অবসর সময়ে মানুষ এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকেই সময় কাটানোর জন্য বেছে নেন।

যেভাবে দিন প্রতিদিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ব্যবহার বেড়েই চলেছে তাতে অনেক মানুষ যে আ-সক্তি-তে পড়ে যাচ্ছেন তাতে সন্দেহ নেই। যদিও এই ব্যাপার নিয়ে চিন্তা প্রকাশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা। কারন অনেকেই অতিরিক্ত সোশ্যাল মিডিয়ার সাথে যুক্ত থাকার কারণে মানসিক অ-ব-সাদে ভুগছেন।সোশ্যাল মিডিয়া বলতে আমরা সাধারণত বিভিন্ন অনলাইন অ্যাপ্লিকেশনগুলিকে বুঝি।

এই অ্যাপ্লিকেশন গুলির মধ্যে রয়েছে — ফেসবুক, টুইটার, মেসেঞ্জার, ইনস্টাগ্রাম, হোয়াটসঅ্যাপ প্রভৃতি। খুব সহজ পদ্ধতিতে এই অ্যাপগুলিতে একাউন্ট খোলার মাধ্যমে আমরা সোশ্যাল মিডিয়ার সাথে যুক্ত হয়ে যাই।আমরা একান্তভাবে আপনাদের সকলের কাছে অনুরোধ করব যাতে অবশ্যই আপনারা সকলে নিয়ন্ত্রণ বজায় রেখে এই সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করেন।

নাহলে তা পরবর্তীকালে আপনার ব্যক্তিগত এবং পেশাগত জগতে প্রভাব ফেলতে পারে।সম্প্রতি নেট দুনিয়ায় এমন একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যা দেখে মানুষ প্রকৃতির ভ-য়া-বহ লীলার কথা অনুভব করতে পেরেছে। সেই ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে পদ্মা নদীর মাঝ বরাবর হঠাৎ করেই একটি লঞ্চ প্রবল শিলাবৃষ্টি এবং ঝড়ের কবলে পড়েছে। প্রবল ঢেউ এর কারণে রীতিমতো লঞ্চটি সোজাভাবে দাঁড়িয়ে অবধি থাকতে পারছে না। লঞ্চের চালক প্রাণপণ চেষ্টা করছেন ফেরিটির সামঞ্জস্য বজায় রাখার, কিন্তু প্রতিবারই তিনি ব্যর্থ হচ্ছেন।

লঞ্চে কতজন যাত্রী আছে তা বোঝা না গেলেও, যাত্রীসংখ্যা যে নেহাতই কম নয় তা জানা গিয়েছে।এমতাবস্থায় লঞ্চটিকে ঝড়ের কবল থেকে বাঁচাতে না পারলে যে খুব শীঘ্রই এতগুলি মানুষের প্রা-ণ মৃ-ত্যু-মু-খে চলে যাবে তা বুঝতে পেরেছেন চালক।প্রথমে ঢেউ এবং ঝড়ের ক-ব-ল থেকে বাঁচানোর জন্য বেশ কিছুক্ষন চেষ্টা করার পর যখন তিনি ব্যর্থ হন তখন ভগবান সহায় হন সেই যাত্রীদের প্রতি।

ভিডিওর শেষ অংশে দেখা যাচ্ছে ঢেউ এর পরিমাণ কিছুটা কমে আসায় ধীরে ধীরে আবারো লঞ্চটি স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসে। প্রথমদিকে ভিডিওটি দেখে অনেক নেট নাগরিকরা আ-তঙ্কি-ত হলেও ভিডিওর শেষ অংশে পৌঁছে অনেকেই খুশি হয়েছেন। কারণ,লঞ্চটি স্বাভাবিক অবস্থায় ফেরত না আসলে অনেকগুলি মানুষের প্রা-ণহা-নি হওয়ার আ-শ-ঙ্কা ছিল। তবে কমেন্ট বক্সে অনেকেই এই ঘটনাটিকে ঈশ্বরের ইচ্ছে বলে অভিহিত করেছেন।চাইলে আপনারাও এই ভ-য়-ঙ্ক-র ভাইরাল ভিডিওটি দেখে আসতে পারেন। রইলো ভিডিও।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button