ধীরে ধীরে নেমে যাচ্ছে ভূগর্ভস্থ জলস্তর! 2050 সালের পর একফোঁটাও জল পাবে না ভারতসহ 500 কোটি মানুষ! চিন্তার ঘুম উড়েছে বিজ্ঞানীদের!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- জলের অপর নাম জীবন । সেই ছোটবেলা থেকে পাঠ্যপুস্তকে এমনটাই জেনে আসছি আমরা । কিন্তু সেই জ্ঞান আমাদের মধ্যে থাকলেও তার ব্যবহারেই সমাজে কতখানি হচ্ছে সে ব্যাপারে রয়েছে গভীর প্রশ্ন । কারণ কলের জল যদি রাস্তায় খোলা থাকে তাহলে আমরা কেউ সেটি বন্ধ করে দিন না বা অকারণে জল অপচয় কোনো অর্থেই আমরা কমিয়ে ফেলতে পারছি না । যার ফলে একদিন জল পৃথিবী ভূপৃষ্ঠ থেকে অনেকটা নিচে নেমে যাবে এমনটা বললে হয়ত খুব একটা ভুল হবেনা ।

এবার সেই আ-শঙ্কা মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে গোটা বিশ্বের কাছে । যার ফলে আগামী ২৯ বছরের মধ্যেই ভারতসহ ৫০০ কোটির বেশি মানুষ এক ফোটাও জল পাবে না এমনটা জানাচ্ছে রাষ্ট্রপুঞ্জ । ওয়ার্ল্ড মেটিরিওলজিক্যাল অর্গানাইজেশন তাদের রিপোর্টে এমনটা জানিয়েছেন যে এই সমস্যা থেকে কিভাবে মুক্তি পাওয়া যেতে পারে সে ব্যাপারে একটি বিস্তারিত আলোচনা করা দরকার । এই জন্য গোটা বিশ্বের রাষ্ট্রনেতা দের সাথে একটি আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে ।

তার পাশাপাশি সেই রিপোর্টে জানানো হয়েছে যে গত কুড়ি বছরে ভারতবর্ষে আবহাওয়ার ব্যাপক পরিবর্তন ঘটেছে যা কখনো এর আগে লক্ষ্য করা যায়নি । ভূপৃষ্ঠের নিচে নামতে শুরু করেছে এবং এমনটা জানানো হচ্ছে যে প্রতিবছর এক সেন্টিমিটার এর নিচের দিকে নেমে যাচ্ছে । দ্রুত যদি এই সমস্যার সমাধান না করা হয় তাহলে আগামী ২৯ বছরের মধ্যে ভারতবর্ষসহ বিশ্বের ৫০০ কোটির বেশি মানুষ ছিটে ফোটাও জল পাবে না এমনটা জানাচ্ছে সমীক্ষা ।

চরম জলাভাব দেখা দেবে উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকার পশ্চিম অংশ, ভূমধ্যসাগর, উত্তর ও দক্ষিণ আফ্রিকা, মধ্যপ্রাচ্য, মধ্য এশিয়া, পূর্ব এশিয়া ও দক্ষিণ এশিয়ায়। চরম জলাভাবে ভুগবে দক্ষিণ-পূর্ব অস্ট্রেলিয়াও ।জলস্তরের এই অধোগতি সবচেয়ে বেশি হয়েছে অ্যান্টার্কটিকা ও গ্রিনল্যান্ডে। পৃথিবীতে যে পরিমান জল রয়েছে জল রয়েছে তার ০.৫ শতাংশ জল ব্যবহারযোগ্য ।এই ব্যবহারযোগ্য জলের ভাণ্ডার ক্রমশ ফুরিয়ে আসছে । যার ফলে চিন্তিত হয়ে পড়েছে বিশেষজ্ঞরা । যে সমস্ত জল ব্যবহার যোগ্য নয় তাদেরকে কিভাবে ব্যবহারযোগ্য করা যাবে সে ব্যাপারে চলছে নিরন্তর গবেষণা ।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button