দৈনিক 7 টাকা করে জমা দিয়ে পেয়ে যান মাসিক 5000 টাকার নিশ্চিত পেনশন! জেনে নিন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- অবসর জীবন টাকা পয়সার অভাব থেকে এবার মুক্তি ঘটতে চলেছে দেশবাসীর । আমাদের ভারতবর্ষে এমন অনেক মানুষ বসবাস করছে যারা দরিদ্র সীমার নিচে বসবাস কর তাদেরকে সামনের সারিতে উঠে আনার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন ধরনের প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে যে প্রকল্পের আওতায় সাধারণ মানুষের বহু রকম ভাবে উপকৃত হয়েছে

ঠিক তেমনই প্রধানমন্ত্রী পুনরায় নতুন প্রকল্পের সূচনা করেছেন এখানে মাত্র প্রতিদিন ৭ টাকা জমালে আপনি মাসে পেয়ে যাবেন ৫০০০ টাকা ঘটনাটি প্রাথমিকভাবে অবিশ্বাস্য মনে হলেও মনটা কিন্তু সম্ভব এবং এটা শুধুমাত্র সম্ভব অটল পেনশন যোজনার মাধ্যমে। কি এই স্কিম ? এর মাধ্যমে জানানো হচ্ছে যে আপনি চাকরি জীবন থেকে ছুটি নেওয়ার পর

অর্থাৎ অবসর নেওয়ার পর প্রতি মাসে ১০০০ টাকা ২০০০ টাকা ৩০০০ টাকা ৪০০০ টাকা এমনকি ৫০০০ টাকা প্রতিমাসে পেনশন পেতে পারেন অবশ্যই তার জন্য আপনাকে কিছু শর্ত মেনে চলতে হবে। এবং এটি মূলত তাদের জন্যই করা হয়েছে যাদের নির্দিষ্ট বয়সে এসে দেখাশোনা করার মতন লোক থাকে না । তাই তারা নিজেরাই টাকা পয়সা দিয়ে নিজেদের সংসার চালিয়ে নিতে পারবেন।

যত কম বয়সে এই যোজনার সঙ্গে যুক্ত হবেন তত বেশি লাভবান হবেন ৷ যদি কোনও ব্যক্তি ১৮ বছর বয়সে এই যোজনায় ইনভেস্ট করা শুরু করেন এবং ৬০ বছর বয়সের পর ৫০০০ টাকা পেনশন পেতে চান তাহলে মাসে ২১০ টাকা ইনভেস্ট করতে হবে ৷ অর্থাৎ এই যোজনায় প্রতিদিন ৭টাকা করে জমা করে প্রতি মাসে পেয়ে যাবেন ৫০০০ টাকা৷

মাসে ১০০০ টাকা পেনশনের জন্য কেবল ৪২ টাকা জমা করতে হবে মাসে ৷২০০০ টাকার জন্য ৮৪ টাকা, ৩০০০ টাকার জন্য ১২৬ টাকা এবং ৪০০০ টাকার জন্য ১৬৮ টাকাএমনকি আপনি জানলে অবাক হবেন যে ইনকাম ট্যাক্স দেড় লক্ষ টাকা পর্যন্ত ছাড় পাওয়া যাবে এই যোজনার ক্ষেত্রে। এই পেনশন যোজনা নিজেকে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য যে সমস্ত জরুরি নথিপত্রগুলো প্রয়োজন হবে তা নিম্নরূপ

১) নিকটতম ব্যাঙ্কে প্যান কার্ড এবং আধার কার্ডের সেল্ফ-অ্যাটেস্টেড কপি জমা দিতে হবে। এর মাধ্যমে অটল পেনশন যোজনা অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে।

২) এই নথি জমা দেওয়ার সময়, আবেদনকারীকে প্যান এবং আধার কার্ডের অরিজিনাল তাঁদের সঙ্গে রাখতে হবে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button