বর্ধমানের একটা অতি সাধারণ মেয়ে থেকে আজ টলিউডের সুপারহিট নায়িকা শুভশ্রী!

আকাশবার্তা অনলাইন ডেস্ক: বর্তমান সময়ে টলিপাড়ার অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী শুভশ্রী গাঙ্গুলী। বাংলা সিনেমার জগতে দেব, জিত প্রমুখ তাবড় তাবড় অভিনেতার সাথে নায়িকার ভূমিকায় অভিনয় করে বাংলার কোটি কোটি দর্শকের মন মাতিয়েছেন তিনি। তার রূপ এবং গুণ তাকে সেরা অভিনেত্রী হয়ে উঠতে সাহায্য করেছে। তবে আপনি কি জানেন এই প্রতিভাধারী অভিনেত্রীর টলিউডে ঢোকার স্ট্রাগেলের কাহিনী? হ্যা , প্রথমেই অভিনয় জগতে নিজের পা মজবুত করতে পারেননি এই অভিনেত্রী। এর পেছনে রয়েছে তার একাধিক পরিশ্রমের ইতিহাস। যা জানলে আপনিও হতবাক হবেন।

শুভশ্রীর অভিনেত্রী হয়ে ওঠার স্ট্রাগল:আপনি এখন শুভশ্রী গাঙ্গুলীকে একজন খ্যাতনামা এবং অভিনয় জগতে নিজের জায়গা মজবুত করা এক অভিনেত্রী হিসেবে দেখলেও আজ থেকে ১৫ বছর আগে কাহিনীটা ছিল একদম অন্যরকম। শুভশ্রীর ছোটবেলার থেকেই সখ বড় অভিনেত্রী হওয়ার। কিন্তু তার বাড়ির প্রত্যেকেই ছিলেন চাকুরিজীবী । ফলে তার এই অভিনেত্রী হওয়ার স্বপ্নে সেভাবে পাশে পাননি পরিবারকে। তার কেরিয়ারের শুরুতে কেবলমাত্র পাশে পেয়েছিলেন তার মা এবং দিদিকে। সুদূর বর্ধমান থেকেই রোজ কলকাতায় অডিশন দিতে আসা এবং সেখান থেকে আবার বর্ধমান ফিরে যাওয়া। এই জার্নি যেমন কষ্টকর ছিল তেমনি ছিল ধৈর্য্যের।

অবশেষে তিনি সাফল্য পান ২০০৬ সালে। সেই বছর তিনি জয়ী হন “আনন্দলোক নায়িকার খোজ” -এ। এরপর ২০০৮ সালে ওড়িয়া সিনেমা “মাতে লা লাভ হেলারে” -তে অভিনয়ের মধ্যে দিয়ে নিজের অভিনয় জীবন‌ শুরু করেন। এরপর আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। টলিউডে তার প্রবেশ “পিতৃভূমি” সিনেমায় অভিনয়ের মধ্যে দিয়ে। সেখানে জিতের বোনের চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি। তারপর ২০০৮ সালেই অভিনেতা সোহমের বিপরীতে “বাজিমাত” সিনেমায় নায়িকা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন তিনি। তারপর একের পর এক নিয়িকার চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি এবং মন জয় করেছেষ সমগ্র বঙ্গবাসীর। এই বছর শুভশ্রী অভিনীত “ধূমকেতু” আসতে চলেছে সিনেমা হলে।

সাংসারিক জীবন:বর্তমানে অভিনেত্রী শুভশ্রী পরিচালক রাজ চক্রবর্তীর স্ত্রী। তাদের দাম্পত্য জীবন যথেষ্ট সুখের। নেটিজেনদের মতে, ” মেড ফর ইচ আদার” জুটি তাদের। শুধু তাই নয়, সম্প্রতি মা‌ হয়েছেন অভিনেত্রী। আর তার ছোট্ট সন্তান ইউভানের ভিডিও তিনি প্রায় প্রতিদিন আপলোড করে নেন সশ্যাল মিডিয়ায়। ইউভানের দুষ্টু মিষ্টি ভিডিও দেখে আপ্লুত হন নেটিজেনরাও।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button