পুজোর আগেই বড় বিপর্যয়! বাংলার তিন জেলায় নামানো হলো সেনা! জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন:পুজোর আগেই রাজ্যে ফের দুর্যোগের সম্ভাবনা দেখা দিতে চলেছে।ইতিমধ্যেই টানা কয়েক সপ্তাহ নিম্নচাপ এবং বৃষ্টির ফলে অসুবিধার মুখোমুখি হয়ে রয়েছেন বঙ্গবাসী। দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলা ইতিমধ্যেই প্লাবিত হয়ে গিয়েছে। এরই মধ্যে আবারও হাওয়া অফিসের তরফ থেকে নতুন তথ্য জানানো হলো। জানা যাচ্ছে আজ শুক্রবার থেকেই আবারও উত্তরবঙ্গে বৃষ্টি শুরু হতে পারে।

অপরদিকে ঝাড়খণ্ডের বিস্তীর্ণ এলাকায় ভারী বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা থাকায় পশ্চিম বর্ধমান, হাওড়া, হুগলি সহ বীরভূমের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হতে পারে। আজ সকাল থেকেই বেশিরভাগ জেলায় আকাশের মুখ ভার হয়ে রয়েছে। তাই আগাম সতর্কবার্তা জারি করল আবহাওয়া দপ্তর। ইতিমধ্যেই আবহাওয়ার সাথে মোকাবিলা করার জন্য বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের সচিব উত্তরবঙ্গের সব জেলা শাসক এবং পুলিশ সুপারদের নিয়ে জরুরি বৈঠক সেরে ফেলেছেন। সেইমতো পুলিশ প্রশাসনকে সতর্ক করা হয়েছে।

জানা যাচ্ছে ভারী বৃষ্টির কারণে উত্তরবঙ্গের একাধিক নিচু এলাকা জলমগ্ন হতে পারে। তাই সম্ভাবিত এলাকাগুলি থেকে মানুষজনকে সরিয়ে অন্য জায়গায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। পাশাপাশি সব ধরনের ত্রাণ সামগ্রী যাতে পর্যাপ্ত পরিমাণে মজুত থাকে সেই দিকে নজর দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। শুধুমাত্র বৃষ্টিপাত নয়,একটানা বৃষ্টির কারণে জলাধারগুলো থেকে জল ছাড়ার কারণেও প্লাবিত হতে পারে একাধিক এলাকা।

ইতিমধ্যেই প্রায় কয়েক লক্ষ কিউসেক জল ছেড়েছে ডিভিসি। যার কারণে নিম্ন দামোদর অববাহিকা নদীগুলির সংলগ্ন এলাকা প্লাবিত হবার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। এরই মধ্যে এই আশঙ্কা মোকাবিলা করার জন্য পশ্চিম বর্ধমান, হাওড়া ও হুগলিতে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। প্লাবিত এলাকাগুলি থেকে প্রায় 3 লক্ষ মানুষকে নিরাপদে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদি দক্ষিণবঙ্গের কয়েকটি জেলা শাসক এবং পুলিশ সুপারদের সঙ্গে জরুরি বৈঠক করেছেন। সেই বৈঠকে নেওয়া সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বন্যা মোকাবিলা করার জন্য জেলা প্রশাসনকে যাবতীয় প্রস্তুতি নেওয়ার কথা বলা হয়েছে। পাশাপাশি জল ছাড়ার দিকেও বিশেষ নজর রাখার কথা বলা হয়েছে।যদিও ইতিমধ্যে রাজ্যের সঙ্গে ডিভিসির সংঘাত চরম পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে।অতিরিক্ত পরিমাণে জল ছাড়ার কারণে প্লাবন সৃষ্টি হলে স্বাভাবিক ভাবেই পুজোর আগে বড়োসড়ো বিপদের মুখোমুখি হবে বঙ্গবাসী তাতে কোন সন্দেহ নেই।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button