পুরনো 1, 5 ও 10 টাকার নোট থাকলেই বাজিমাত! এইখানে বিক্রি করে পান লক্ষাধিক টাকা! রইল ঠিকানা।

নিজস্ব প্রতিবেদন :-বর্তমান যুগে প্রত্যেকেই চাইছে যে যেমনভাবে হোক টাকা পয়সা উপার্জন করতে ।কারণ দীর্ঘদিন ধরে এই মহামারীর প্রকল্পে অর্থনৈতিক অবস্থা প্রত্যেকের শোচনীয়। এই অবস্থায় দাঁড়িয়ে যদি পুনরায় নতুনভাবে পথ চলতে হয় তাহলে অতি অবশ্যই টাকা পয়সা উপার্জন করা অত্যন্ত জরুরি ।কিন্তু যদি এই মুহূর্তে আপনাকে বলা হয় যে পুরনো নোট কিংবা কয়েন বিক্রি করে আপনি লাখপতি এমনকি কোটিপতি হতে পারেন তাহলে কি আপনি অবাক হবেন? অবাক হবার কোন কারণ নেই ।কারন বেশ কিছুদিন ধরেই বিভিন্ন ই-কমার্স সাইট গুলিতে পুরনো কয়েন এবং নোট বিক্রির করার ঘটনা পরিলক্ষিত হচ্ছে।

আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই আছেন যারা পুরনো কয়েন কিংবা নোট জমিয়ে রাখতে পছন্দ করেন তাদের জন্য এই প্রতিবেদনটি নিয়ে এসেছে অত্যন্ত সুখবর ।আজকের এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে জানাবো যে কোন কয়েন বিক্রি করলে আপনি কত টাকা পেতে পারেন তার পাশাপাশি কোন কোন গুলি আপনি বিক্রি করতে পারবেন এবং কোথায় বিক্রি করতে পারবেন সেই সমস্ত তথ্য

এক টাকার নোট:– যদি আপনার কাছে পুরনো এক টাকার নোট থেকে থাকে যাতে 1975 সালে রিজার্ভ ব্যাংকের প্রাক্তন গভর্নর এইচ‌এম প্যাটেলের স্বাক্ষর রয়েছে এবং এই নোট টির যদি সিরিয়াল নাম্বার থাকে 123456 , তাহলে এই নোট আপনি কয়েন বাজার ওয়েবসাইটে বিক্রি করে 45 হাজার টাকা পর্যন্ত পেতে পারেন

পাঁচ টাকার নোট:- যদি আপনার কাছে থাকি একটি পুরনো পাঁচ টাকার নোট এবং তাতে যদি ট্রাক্টর এর ছবি থেকে থাকে এবং সেই সাথে পবিত্র নম্বর 786 লেখা থাকে, তাহলে ওয়েবসাইটে এই নোট বিক্রি করে আপনি 30 হাজার টাকা পর্যন্ত পেতে পারেন।

দশ টাকার নোট:- যদি আপনার কাছে থাকে একটা দশ টাকার পুরনো নোট , এবং তাতে যদি থাকে অশোক স্তম্ভ এবং সেই সাথে সেই নোটটি যদি তৈরি হয় 1943 সালে , এবং স্বাক্ষর থাকে সিডি দেশমুখ এর, তাহলে নিঃসন্দেহে এই নোটের বান্ডিল আপনি কয়েক লক্ষ টাকা পর্যন্ত উপার্জন করতে পারেন।

এই নোট গুলি কে বিক্রি করার জন্য কয়েন বাজার এর অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে আপনাকে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে এবং একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। তারপর উপযুক্ত কয়েন কিংবা নোটের ছবি আপলোড করতে হবে ওয়েবসাইটে

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button