শোভনের বাড়ি কিনে নিলেন বৈশাখী, রত্নাকে বাড়ি ছাড়ার পরামর্শ দিলেন শোভন বান্ধবী

প্রাক্তন অধ্যাপিকা বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় এবার শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বেহালার বাড়ি কিনে নিলেন। শোভনের বেহালার বাড়ি শনিবার বৈশাখীর নামে হস্তান্তরিত হয়েছে।বাড়ির মালিকানা পাওয়া মাত্রই বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় শোভনবাবুর স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়কে সসম্মানে বাড়ি ছাড়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

রত্না সসম্মানে বাড়ি না ছাড়লে তাঁর বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ করারও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়।জানা গিয়েছে, রত্নার সাথে ডিভোর্সের মামলা সহ বেশকিছু মামলার খরচ এই মুহূর্তে চালাতে হচ্ছে কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়কে।

এখন সেরকম কোন রোজগার না থাকার কারণে আইনি সমস্যা মেটাতে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে শোভন বাবুকে। এসব আইনি খরচ মেটাতে শোভন চট্টোপাধ্যায়কে সহায়তার আশ্বাস দেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়।এই আর্থিক সহায়তার বিনিময় বেহালার বাড়িটি বৈশাখীদেবীর নামে লিখে দিয়েছেন শোভনবাবু। বিয়ের আগে থেকেই ওই বাড়িতেই থাকতেন শোভন বাবু।

বর্তমানে রত্না চট্টোপাধ্যায় সেখানে ছেলে ও মেয়েকে নিয়ে থাকেন। ওই বাড়িটির বিনিময়ে বৈশাখীদেবী এক কোটি টাকার অধিক অর্থ দিয়েছেন শোভন বাবুকে।কিছুদিন শান্ত থাকার পর ফের শোভন-রত্না-বৈশাখী বিতর্ক শুরু হয়েছে। দুই পক্ষের একাধিক পদক্ষেপ নতুন করে বিতর্ক তৈরি করেছে।

শোভন-রত্নার ডিভোর্স মামলার শুনানি আগামী সপ্তাহে। তার আগে সম্পত্তি হস্তান্তর বিতর্ক আইনি লড়াই পর্যন্ত গড়াবে কিনা সেটাই দেখার।বাড়ির মালিকানা পাওয়ার পর বৈশাখী বলেছেন, “আমি শোভনবাবুকে জানিয়েছিলাম আমার সবকিছুই তিনি ব্যবহার করতে পারেন।

কিন্তু উনি বিনামুল্যে আমার সাহায্য নিতে চাননি। ওর যেহেতু এখন আয় বন্ধ, আইনি খরচ চালাতে সমস্যা হচ্ছিল, তাই আমার কাছে বেহালার বাড়িটি বিক্রি করে দিয়েছেন।”

এখন যেহেতু তিনি বাড়ির মালিক, তাই রত্নাদেবীকে আর ওই বাড়িতে থাকতে দেবেন না। তবে শোভনবাবুর মেয়ে যদি মায়ের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করে ওই বাড়িতে থাকতে চান তাহলে অবশ্যই থাকতে পারেন।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button