রান্নাঘরে ঢুকতেই হলো বি-প-ত্তি! গ্যাসের সিলিন্ডার থেকে বেরিয়ে এলো বিশালাকার কো-ব-রা সাপ! তু-মু-ল ভাইরাল হলো ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন:সোশ্যাল মিডিয়া মানেই নিত্য-নতুন ভিডিওর সম্ভার। এই ভিডিওগুলি আমরা খুব সহজেই সামান্য কিছু ইন্টারনেট খরচ করে ঘরে বসেই যেকোনো মুহূর্তে দেখতে পারি।বর্তমানে প্রতিটি দিন পেরোনোর সাথে সাথেই সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার মানুষের মধ্যে আরও বেশি করে ছড়িয়ে পড়ছে। এখানে নানান ধরনের ভিডিও প্রতিনিয়ত ভাইরাল হতে থাকে।

যেমন অনেকেই বিভিন্ন নাচ-গানের ভিডিও শেয়ার করেন ঠিক তেমনভাবেই আবার অনেক শিক্ষনীয় ভিডিও এখানে দেখতে পাওয়া যায়।আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া একটি ভয়াবহ ভিডিও নিয়ে আলোচনা করব। এই ভিডিওটি যে কোন মানুষকে অবাক করে দিতে বাধ্য হবে। তাহলে আসুন আর দেরি না করে শুরু করা যাক।

সাপের বিভিন্ন প্রজাতির কথা আমরা আগেই শুনেছি। এই সরীসৃপ কে ভ-য় পায় না এরকম মানুষ হয়তো খুব কমই আছেন।বলা হয় সাপ সম্মোহন ক্ষমতার সাহায্যে জীবজন্তুকে বশ করে শি-কা-র ধরে। এমনকি হিন্দু ধর্মে সাপকে দেবী মা মনসার বাহন হিসেবে পূজা করা হয়। তাই সোশ্যাল মিডিয়াতেও সাপ সং-ক্রান্ত বিভিন্ন ভিডিও খুব দ্রুত ভাইরাল হয়ে উঠতে থাকে। পৃথিবীতে বি-ষ-ধর এবং বিষ-হীন এই দুই ধরনের সাপ রয়েছে।

তবে অভিজ্ঞতা না থাকলে সাপের প্রজাতি চেনা খুব মুশ-কি-ল। তাই সাপ দেখলে অনেকেই আ-তঙ্কি-ত হয়ে তাদেরকে মে-রে ফেলেন। কিন্তু কোনো নিরীহ প্রাণী কে মে-রে ফেলা একেবারেই উচিত নয়।তাই বর্তমানে অনেক রেস্কিউ টিম অর্থাৎ উদ্ধারকারী দল এইসব সরীসৃপ কে উদ্ধার করে যথাস্থানে ছেড়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন। সম্প্রতি তাদের তরফ থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে।

মুহূর্তের মধ্যেই অত্যন্ত ভাইরাল এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, কোন একটি বাড়ির রান্না ঘরে সিলিন্ডারের কোনায় একটি কোবরা সাপ ঢুকে গিয়েছে।সাপটিকে ধ-রা ছিল প্রায় অসম্ভব। কিন্তু উদ্ধারকারী যুবক নিজের প্রা-ণের তোয়া-ক্কা না করে সকল কে বাঁচানোর জন্য শেষ পর্যন্ত অনেক কষ্ট করে এই কো-ব-রা টিকে ধরে ফেলেন।প্রসঙ্গত মির্জা মোঃ আরিফ নামে একটি জনপ্রিয় সর্পরক্ষক ইউটিউব চ্যানেলের তরফ থেকে এই ভিডিওটি শেয়ার করা হয়েছে। এবং ভিডিওতে উল্লেখিত যুবক হচ্ছেন মির্জা মহম্মদ আরিফ নামের ব্যক্তি।

তিনি নানান জায়গা থেকে এই ধরনের বিষ-ধর সাপ গুলিকে উদ্ধা-র করে থাকেন। তাই ভিডিওতে সাপ সংক্রান্ত নানান ধরনের তথ্য প্রদান করতে দেখা গিয়েছে তাকে। যেমন ভিডিওর এক অংশে আরিফ বলেন, এই ধরনের সাপগুলি অত্যন্ত বিষধর প্রজাতির হয়। তবে অত্যন্ত ক্ষুব্ধ না হলে কখনোই মানুষকে ছো-বল মারে না। এমতাবস্থায় অত্যন্ত সতর্কতার সাথে তাদের ধরার চেষ্টা করা উচিত। এবং যদি প্রশিক্ষণ না থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই যেন কেউ সাপ ধরতে না যায়। আরিফের শেয়ার করা এই ভিডিওটি দেখে অনেকেই অভিভূত হয়ে পড়েছেন।

যেভাবে তিনি ওই কো-বরা সাপ টি-কে উদ্ধার করেছেন তা নিঃসন্দেহে প্রশংসার যোগ্য।জানা গিয়েছে এভাবেই সমস্ত জায়গা থেকে সাপ উদ্ধার করে জ-ঙ্গলাকীর্ণ জায়গায় ছেড়ে দেন তারা। যার ফলস্বরুপ কখনোই সাধারণ মানুষের জীবন বা ওই নিরীহ সরীসৃপদের জীবন ক্ষ-তিগ্র-স্ত হয় না।

পৃথিবীতে এই ধরনের মানুষ থাকার কারণেই এখনো পর্যন্ত বাস্তুতন্ত্রের ভারসাম্য বজায় রয়েছে। ইতিমধ্যেই প্রচুর পরিমাণে লাইক এবং শেয়ার পেয়ে গিয়েছে ভিডিওটি। কোন একটি ভিডিওর লাইক এবং শেয়ারের উপর ভিত্তি করেই তা কতটা ভাইরাল হয়েছে নির্ধারণ করা হয়। সেই দিক থেকে দেখতে গেলে এই ভিডিওটি একেবারেই সফলতা অর্জন করেছে। চাইলে আপনারাও এই ভিডিওটি দেখে আসতে পারেন।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button