ঘরের দেওয়ালের খপড়ে বাসা বেঁধেছে বাচ্চা সহ এক কো’ব’রা, ঘরে রাতে ঘুমোতে গিয়েই ঘটলো বড় বি-প’ত্তি, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- সা-প নিয়ে যতই বলব ততই কম পড়ে যাবে । কারণ প্রতিনিয়ত আমাদের আশেপাশে আমরা এমন অনেক ঘটনা দেখে থাকি যা সরাসরি সম্পর্ক সাপের সাথে । আগেকার যুগের সা-পের কা-মড়ে মৃ-ত্যু হয়েছে বহু মানুষের । বিশেষ করে গ্রামগঞ্জে এই ঘটনা প্রভাব দেখা যেত বেশী পরিমাণে । কারণ তার আশে পাশে থাকতো না কোনো হা-স-পাতাল বা চি-কিৎসা ব্যবস্থা ।যার ফলে অধিক সময় ধরে শরীরের মধ্যে থেকে যেত বি-ষ এবং সে ব্য-ক্তির মৃ-ত্যু ঘ-টে ।

যদিও বর্তমানে সংখ্যা প্রায় শূন্যের কাছাকাছি । আগেকার যুগে মানুষের মধ্যে কু-সং-স্কার ছিল ব্যা-পক পরিমাণে । তাই যদি কোন কারনে কোন ব্যক্তিকে সা-পে কা-ম-ড়াতে তাহলে তাকে হা-স-পা-তালে নিয়ে যেতে না বরং গ্রামের কোন পীর বাবা বা ও-ঝার কা-ছে ঝা-ড়ফুঁ-ক করাতে নিয়ে যেত এবং এই কু-সং-স্কারা-চ্ছন্ন হয়ে বহু মানুষ পরিবার হারা হয়েছে । তার পাশাপাশি আমরা প্রত্যেকে জানি এই সোশ্যাল মিডিয়া আমাদেরকে নিরাশ করেনি কখনো ।

নাচ বা গান সামাজিক মাধ্যমের শিক্ষা হোক বা রাজনৈতিক শিক্ষা সবকিছুই মুহূর্তের মধ্যে হাতের সামনে হাজির করে দিয়েছে এই সোশ্যাল মিডিয়া ।তাই বর্তমান প্রজন্মের সোশ্যাল মিডিয়া অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়ে উঠছে প্রতিনিয়ত এমনটা আর বলার অপেক্ষা রাখে না । সম্প্রতি ইউটিউবে তার ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে সেখানে দেখানো হয়েছে যে একটি প-রিত্যক্ত কু-য়েতে রয়েছে বেশ কতগুলো বি-ষাক্ত সা-প ।

সেগুলির মধ্যে অধিকাংশ সা-প ভারতীয় কো-বরা হলেও তাদের মধ্যে একটি সা-প ছিল যা ভারতের সবথেকে বেশি বি-ষাক্ত সা-প নামে পরিচিত । যদি সেই সা-প কাউকে ছো-বল মা-রে তাহলে মাত্র ১০ মিনিটের ভিতরে তার মৃ-ত্যু ঘ-টবে ।অবশেষে সেখানকার স্থানীয় বাসিন্দারা স্থানীয় এক সা-পুড়ে কে খবর দেয় এবং স্থানীয় সা-পুড়ে এসে সেটি সে-গু-লিকে অতি যত্ন সহকারে উ-দ্ধার ক-রে । গা হি-ম করা এই ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছেন মাধ্যমে সর্বত্র ।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button