কয়েক বছরের মধ্যেই জলের তলায় ডুবে যাবে ৯টি শহর! তালিকায় পশ্চিমবাংলার এক শহর

আকাশবার্তা অনলাইন ডেস্ক: মানুষ প্রযুক্তি বিদ্যায় যথেষ্ট উন্নতি করলেও চোখ রাঙ্গাচ্ছে গ্লোবাল ওয়ার্মিং বা বিশ্ব উষ্ণায়ন। যার ফলে বরফের গলন শুরু হয়েছে মেরু প্রদেশে এবং সমুদ্র জলতল উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে প্রতি বছর। আইপিসিসি ২০২১ -এর রিপোর্ট বলছে ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে পৃথিবীর তাপমাত্রা। যার ফলে জলবায়ু পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেছে বেশ কিছু জায়গায়। পরিবেশ নিয়ন্ত্রণে কিয়োটো প্রোটোকল বা বসুন্ধরা সম্মেলনের মত একাধিক সম্মেলন হলেও সবশেষে মানুষ কমাতে অক্ষম গ্লোবাল ওয়ার্মিং। আর এর জন্যই গবেষকদের সম্ভাবনা, আগামী ২১০০ সালের মধ্যে জলের তলায় তলিয়ে যাবে ৯ টি বড় শহর। তালিকায় নাম রয়েছে কলকাতারও।

১. আমস্টারডাম:নেদারল্যান্ডসের এই শহর প্রায় সমুদ্র সমতল উচ্চতায় অবস্থিত। ফলে প্রায় প্রতি বছরই বন্যার সম্মুখীন হতে হয় এই শহরকে‌ । তবে এখানে বসবাসকারী ডাচ সম্প্রদায় বন্যা প্রতিরোধে যথেষ্ট পারদর্শী। তাই বাধ, লেভি , ফ্লাড গেটের মত ব্যবস্থা নিয়েছে তারা। তবে গবেষকদের মতে, এই শহর সমুদ্র তলে তলিয়ে যাবে অদূর ভবিষ্যতে।

. বাসরা:ইরাকের প্রধান বন্দর শহর হল বাসরা‌ । এই শহর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে শাট আল-আরব নদী। এই নদীর মোহনা রয়েছে পারস্য উপসাগরে। এছাড়াও শহরে একাধিক খাল ও নালা পরিলক্ষিত হয়। যার ফলে এই শহরটিও রয়েছে তালিকায়‌।. নিউ আর্লিন্স:মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি বড় শহর হল নিউ আর্লিন্স। এই শহরের উত্তরে অবস্থান করেছে মাউরেপাস হ্রদ এবং দক্ষিণে অবস্থান করছে সালভাদর হ্রদ ও লিটল লেক । ফলে সমুদ্র ‌জলতলের উচ্চতা বৃদ্ধি পেলে জলে ডুবতে পারে এই শহর।

. সাভানা:জর্জিয়ার একটি হ্যারিকেন হটস্পটে অবস্থান করছে এই সুন্দর শহর সাভানা। গবেষকদের অনুমান, আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই জলতলে নিমজ্জিত হবে এই শহর। পাশাপাশি ২০৫০ সালে এখানে বড় ধরনের হ্যারিকেন আছড়ে পরার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর।

. জর্জটাউন:জর্জটাউন উপকূলবর্তী শহর , যা গায়ানার রাজধানী। এই শহর সামুদ্রিক ঝড় থেকে রক্ষা পেতে ২৮০ কিমি লম্বা সমুদ্র প্রাচীর নির্মাণ করেছে। তবে এই প্রাচীর ভবিষ্যতে আরও মজবুত করতে হবে নতুবা জলের তলায় যাবে এই শহর।. কলকাতা:পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী শহর কলকাতা ভারতীয় মেট্রোপলিটন সিটির উদাহরণ। তবে এই শহর দিয়ে বয়ে গিয়েছে গঙ্গা , যার মোহনা বঙ্গোপসাগরে। নদীর জল উল্লেখযোগ্য হারে ওঠা নামা করায় আগামী দিনে বর্ষায় সংকটজনক পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে বলে মত গবেষকদের। তাদের মতে, ২১০০ সালের মধ্যে এই শহর সম্পূর্ণ জলের তলায় চলে যেতে পারে।

. হো চি মিন সিটি:এই শহর অবস্থিত ভিয়েতনামে। গবেষকদের অনুমান আগামী দিনে এই শহর বড়সড় গ্রীষ্মমণ্ডলীয় ঝড়ের কবলে পরবে এবং আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে জলের নীচে চলে যাবে।

. ভেনিস:ইতালির সুন্দর শহর ভেনিসও রয়েছে অদূর ভবিষ্যতে জলের তলায় চলে যাওয়া শহরের তালিকায়। এখানে বন্যা পরিস্থিতি সুরক্ষার ব্যবস্থা থাকলেও সমুদ্র জলতল বৃদ্ধিতে এই শহর জলে ডুববে বলেই অনুমান গবেষকদের।

. ব্যাংকক:এই শহর থাইল্যান্ডের রাজধানী শহর। তবে এর উচ্চতা সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে মাত্র ১.৫ মিটার। ফলে সমুদ্র ‌জলতলের উচ্চতা বৃদ্ধি এই শহরের প্রতি কড়া আশঙ্কা বার্তা বহন করছে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button