ঘনীভূত হচ্ছে নিম্নচাপ! পশ্চিমবঙ্গের এই এই জেলায় আজই আছড়ে পড়বে ঘূর্ণিঝড়! রয়েছে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা! জানালো আবহাওয়া দপ্তর।

নিজস্ব প্রতিবেদন :-ডিসেম্বর মাস শুরু হতে না হতেই পুনরায় সৃষ্টি হয়েছে ঝড়-বৃষ্টির দাপট। শীতকালে এই ঝড়-বৃষ্টি সাধারণত দেখা যায় না ।কিন্তু একাধিক নিম্নচাপের জেরে বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছিল বিগত কয়েকদিন ধরে তাপমাত্রা ।এবং এই নিম্নচাপ গু-লি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হচ্ছে বলে জানা যাচ্ছে।

মূলত আন্দামান সাগরে এবং বঙ্গোপসাগরের উপর জোড়া নিম্নচাপের জেরে পশ্চিমবঙ্গ একাধিক অঞ্চল ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাত দেখা যাবে বলে অনুমান মৌসম ভবন এর।আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, সেই নিম্নচাপের জেরে প্রবল বৃষ্টি নামবে গুজরাট ও মহারাষ্ট্রে।

সবথেকে বেশি প্রভাব পড়তে পারে পালঘর, থানে ও মুম্বইতে। আগামী শনিবার অন্ধ্র প্রদেশ ও ওড়িশার উপকূলে আছড়ে পড়বে ঘূর্ণি ঝড়।আন্দামান সাগর এবং বঙ্গোপসাগর উপর তৈরি হওয়া এই জোড়া নিম্নচাপ ক্রমশ শক্তি বাড়াবে। আবহাওয়া দপ্তরের খবর অনুসারে আগামী 48 ঘন্টার মধ্যে প্রবল শক্তি সঞ্চয় করে আছড়ে পড়বে এই দুটি ঘূর্ণিঝড় ।

তবে পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা সহ একাধিক জেলাতে শীত অনুভূত একই থাকবে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর।কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ১৮ ডিগ্রির আশেপাশে। জেলাগুলোতে তাপমাত্রা থাকবে ১৫ ডিগ্রির কাছাকাছিডিসেম্বরের ৩ তারিখে দক্ষিণবঙ্গে দুই মেদিনীপুর ও দুই ২৪ পরগনা, ঝাড়গ্রাম, হাওড়ায় হালকা বৃষ্টি হবে। বৃষ্টির পরিমাণ ৪ তারিখ থেকে বাড়তে শুরু করবে।

সব জেলাতেই হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে। শুধু উপকূলে ও দুই মেদিনীপুরে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাত হবে। বাকি জেলার মধ্যে দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া ও ঝাড়গ্রামে দু-এক জায়গায় ভারী বৃষ্টি হবে। তারপর ৫ তারিখ বৃষ্টির পরিমাণ আরও বাড়বে। ৬ তারিখ পর্যন্ত চলবে বৃষ্টি।

এরপর থেকেই জাঁকিয়ে শীত পড়বে রাজ্যের এমনটা বলেছে মৌসম ভবন ঠিক বেশ কিছুদিন আগে মৌসম ভবন যেমনটা জানিয়েছিলেন যে বঙ্গের শীত অনুভব হতে ডিসেম্বর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। তারই প্রমাণ পাওয়া গেল এবার এর এই ঘটনা তে ।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button